SHARE
Image credit: @icc /twitter

প্রথম ইনিংসের পরই ম্যাচের ভাগ্য বলে দেওয়া যাচ্ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে ৩৫৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করা বাংলাদেশের পক্ষে প্রায় অসম্ভব। সেই ‘প্রায় অসম্ভব’ কিছু করে দেখাতে পারেনি বাংলাদেশ। ১০৪ রানে হেরে ওয়ানডে সিরিজও খুইয়ে বসেছে বাংলাদেশ।

বুধবার পার্লে দক্ষিণ আফ্রিকার দেয়া ৩৫৪ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৪৭.৫ ওভারে ২৪৯ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ইমরুল কায়েস ৬৮ ও মুশফিকুর রহিম ৬০ রান করেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্দিল ফেহলাকওয়েও ৪টি, ইমরান তাহির ৩টি, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস ২টি ও ডেন প্যাটারসন ১টি করে উইকেট নেন। এর আগে কিম্বার্লির প্রথম ওয়ানডেতে কুইন্টন ডি কক-হাশিম আমলা যেখানে শেষ করেছিলেন, বোল্যান্ড পার্কে শুরু করেছিলেন ঠিক সেখান থেকেই।

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৭.৩ ওভার পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন ছিলেন এ দুই প্রোটিয়া ওপেনার। ১৮তম ওভারে জোড়া আঘাত হানেন সাকিব আল হাসান। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ৩৫৩ রান করে।

Image credit: @BCBtigers /twitter

দলের পক্ষে এবি ডি ভিলিয়ার্স ১৭৬, হাশিম আমলা ৮৫, কুইন্টন ডি কক ৪৬ ও জেপি ডুমিনি ৩০ রান করেন। বাংলাদেশের পক্ষে রুবেল হোসেন চারটি ও সাকিব আল হাসান দুইটি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ফল: ১০৪ রানে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা
দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংস: ৩৫৩/৬ (৫০ ওভার)

(হাশিম আমলা ৮৫, কুইন্টন ডি কক ৪৬, ফাফ ডু প্লেসিস ০, এবি ডি ভিলিয়ার্স ১৭৬, জেপি ডুমিনি ৩০, ফারহান বিহারডাইন ৭*, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস ০, আন্দিল ফেহলাকওয়েও ০*; মাশরাফি বিন মর্তুজা ০/৮২, তাসকিন আহমেদ ০/৭১, সাকিব আল হাসান ২/৬০, নাসির হোসেন ০/৪৯, রুবেল হোসেন ৪/৬২, সাব্বির রহমান ০/১১, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ০/১৬)।

বাংলাদেশ ইনিংস: ২৪৯ (৪৭.৫ ওভার)

(তামিম ইকবাল ২৩, ইমরুল কায়েস ৬৮, লিটন দাস ১৪, মুশফিকুর রহিম ৬০, সাকিব আল হাসান ৫, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৩৫, সাব্বির রহমান ১৭, নাসির হোসেন ৩, মাশরাফি বিন মর্তুজা ০, তাসকিন আহমেদ ৩*, রুবেল হোসেন ৮; কাগিসো রাবাদা ০/৪০, ডেন প্যাটারসন ১/৬৭, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস ২/৪৮, আন্দিল ফেহলাকওয়েও ৪/৪০, ইমরান তাহির ৩/৫০)।

সিরিজ: তিন ম্যাচ সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা