SHARE
Picture Credit-REUTERS/Sergei Karpukhin

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একের পর এক নির্দেশ জারি করছে ট্রাম্প প্রশাসন। এবার ‘জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে’ সরকারি সব সংস্থাকে ৯০ দিনের মধ্যে ক্যাসপারস্কি ল্যাবের সফটওয়্যার সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে।

চলতি সপ্তাহে ক্যাসপারস্কির সফটওয়্যার ব্যবহার নিষিদ্ধ করার বিষয়ে সিনেটে ভোটাভুটি হওয়ার কথা। বুধবার হোমল্যান্ড সিকিউরিটি দপ্তরের জারি করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, মস্কোভিত্তিক ওই সাইবার নিরাপত্তা ফার্মের সঙ্গে রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর যোগাযোগ নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন। ফলে ওই কোম্পানির এন্টি ভাইরাস সফটওয়্যার জাতীয় নিরাপত্তাকে বিপন্ন করে তুলতে পারে বলে তারা মনে করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি নেটওয়ার্কে ক্যাসপারস্কির সফটওয়্যার ব্যবহার নিষিদ্ধ করার বিষয়ে সিনেটে চলতি সপ্তাহে নির্ধারিত ভোটাভুটির আগেই এ পদক্ষেপ নেয়া হল। বিশ্বজুড়ে ৪০ কোটির বেশি ব্যবহারকারী রয়েছে ক্যাসপারস্কির। তবে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কাছে পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে রাশিয়ার এ কোম্পানি কখনোই খুব বেশি সফল হয়নি।

Picture Credit- @reuters / twitter

ক্যাসপারস্কি ল্যাব ক্রেমলিনের সঙ্গে কোনো ধরনের যোগাযোগ থাকার অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছে। কিন্তু ওই অভিযোগের কারণে যুক্তরষ্ট্রের বেশ কয়েকটি বিপণন সংস্থা ইতোমধ্যে ক্যাসপারস্কির পণ্য বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে।

দুই মাস আগে ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্যাসপারস্কির প্রধান নির্বাহী ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের মধ্যে চালাচালি হওয়া ইমেইল তারা দেখেছে, যেখানে রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা এফএসবির অনুরোধে একটি গোপন সাইবার সিকিউরিটি প্রকল্পের পরিকল্পনা করার কথা বলা হয়েছে।

যদিও ক্যাসপারস্কি কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, রাশিয়ার ডেটা শেয়ারিং আইনের ভুল ব্যাখ্যা করে তাদের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ আনা হচ্ছে। ওই অভিযোগের বিশ্বাসযোগ্য কোনো প্রমাণ এ পর্যন্ত কেউ দেখাতে পারেনি, কারণ তা পুরোপুরি ভিত্তিহীন।