SHARE

কর্পোরেট জগতের শীর্ষ সফল ব্যক্তিত্ব স্টিভ জবসকে নিশ্চয় আর নতুন করে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে না।প্রযুক্তি পণ্যের মাধ্যমে প্রযুক্তি জগৎকে বদলে দিয়েছেন এমন মানুষের একটি তালিকা তৈরি করা হলে তার প্রথমেই থাকবেন স্টিভ জবস।

স্মার্টফোন থেকে শুরু করে কম্পিউটার, সবখানেই আছে তার পথচলা। শুধু এখানেই নয়, অ্যানিমেশন দুনিয়াতেও তিনি একজন অগ্রদূত। ব্যবসায়িক সাফল্যের পাশাপাশি তিনি এক মহা দার্শনিক হিসেবেও পরিচিতি পেয়ে ছিলেন।

স্টিভ জবস এর সেরা দশ উক্তিঃ

১. আমার কাছে কম্পিউটার হচ্ছে এমন একটি অসাধারণ টুল যা আমরাই তৈরি করেছি। এটা মনের বাইসেকেলের সমতূল্য বললেও ভুল হবে না।

২. আমি অনেক কিছুই না কিনে বসে থাকি, কারণ আমার কাছে সেগুলো হাস্যকর মনে হয়েছে।

৩. আমি মনে করি মৃত্যু হচ্ছে জীবনের সবচেয়ে অসাধারণ উদ্ভাবন। এটি জীবন থেকে পুরোনো ও সেকেলে জিনিস থেকে মুক্ত করে।

৪. আপনার জীবনের প্রতিটি মুহূর্তই আপনার ভবিষ্যতকে রুপদানে কাজ করে। সুতরাং জীবনের প্রতিটি মুহূর্তকেই সঠিকভাবে কাজে লাগানোর চেষ্টা করুন।

৫. কবরস্থানের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হওয়া আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়, রাতে ঘুমোতে যাওয়ার সময় আমরা অসাধারণ কিছু করেছি বলতে পারাটা…. এটাই আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

৬. মানুষের সঙ্গে সহজ ব্যবহার করা আমার কাজ নয়। আমার কাজ হচ্ছে, মানুষকে দিয়ে আরও ভাল কিছু করানো।

৭. আপনার সময় সীমিত, সুতরাং অন্য কারো জীবন যাপন না করে বরং নিজের জীবনটাই যাপন করুন।

৮. উদ্ভাবনই একজন নেতা ও একজন অনুসরণকারীর মধ্যে পার্থক্য তৈরি করে দেয়।

৯. ব্যবসার জন্য আমার মডেল হচ্ছে বিটলস। তারা চারজন ছিলেন যারা একে অপরের নেতিবাচক দিকগুলো সামলে রাখতেন। তারা একে অপরের ভারসাম্য বজায় রাখতেন এবং একক হিসেবে নয় সম্পূর্ণ হিসেবে তারা ছিলেন অসাধারণ। আমিও ব্যবসাকে ঠিক ওইভাবে দেখি: ব্যবসাতে বড় বড় কাজগুলো কখনও একজন ব্যক্তি একা করেন না। ওই কাজগুলো দলবদ্ধভাবে করা হয়।

১০. সক্রেটিসের সঙ্গে একটি সন্ধ্যা কাটানোর জন্য আমি আমার সব প্রযুক্তি দিয়ে দিতে রাজি।