Bangladesh-railway

স্বাস্থ্যবিধি মেনে রোববার (৩১ মে) থেকে ট্রেন চলাচল করবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। প্রতিটি স্টেশন ও ট্রেনে থাকবে জীবাণুনাশকের ব্যবস্থা। প্রথমে চলবে ৮টি আন্তঃনগর ট্রেন। এসব ট্রেনের টিকিট বিক্রি হবে অনলাইনে, প্রতিটি ট্রেনের মোট আসনের অর্ধেক টিকিট বিক্রি হবে। তবে বন্ধ থাকবে মেইল, লোকাল ও কমিউটার ট্রেন।

দীর্ঘ দুই মাস বন্ধ থাকার পর আগামী ৩১ তারিখ থেকে চালু হচ্ছে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল। এক্ষেত্রে প্রতিটি স্টেশনে থাকবে জীবানুনাশকের ব্যবস্থা, ট্রেনগুলোতে জীবানুনাশক স্প্রে করা হবে বলে জানিয়েছে রেলওয়ে। ট্রেনে যাত্রী বসানোর ক্ষেত্রে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করার কথাও জানিয়েছেন কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ৩১ মে থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম লাইনে সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, সূবর্ণ এক্সপ্রেস, ঢাকা-সিলেট লাইনে কালনী, সিলেট-চট্টগ্রাম লাইনে পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেন পরিচালনার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়া ঢাকা-রাজশাহী লাইনে বনলতা এক্সপ্রেস, ঢাকা-খুলনা লাইনে চিত্রা এক্সপ্রেস, ঢাকা-পঞ্চগর লাইনে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস, ঢাকা-লালমনি লাইনে লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন পরিচালনা করা হবে।

৩ জুন থেকে চলতে পারে যেসব ট্রেন

আর ‘খ’গ্রুপে রাখা ট্রেনগুলো ৩ জুন থেকে পরিচালনা করতে সুপারিশ করা হয়েছে। এই ট্রেনগুলো হচ্ছে- ঢাকা দেওয়ানগঞ্জবাজার রুটে তিস্তা এক্সপ্রেস, ঢাকা-বেনাপোল রুটে বেনাপোল এক্সপ্রেস, ঢাকা-চিলাহাটি রুটে নীলসাগর এক্সপ্রেস, খুলনা-চিলাহাটি রুটে রূপসা এক্সপ্রেস, খুলনা-রাজশাহী রুটে কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস, রাজশাহী-গোয়ালন্দ ঘাট রুটে মধুমতি এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম-চাঁদপুর রুটে মেঘনা এক্সপ্রেস, ঢাকা-কিশোরগঞ্জ রুটে কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস এবং ঢাকা-নোয়াখালী রুটে উপকূল এক্সপ্রেস।