এবার পোলট্রি মুরগি নিয়ে সতর্কতা

0
101

করোনাভাইরাসের মধ্যেই আরও এক আতঙ্কের কথা শোনালেন বিজ্ঞানীরা৷ তাদের আশঙ্কা, খামারে যেসব মুরগি থেকে পালন হয় সেখান থেকেই নতুন ভাইরাস ছড়াবে এবং এর জেরে পৃথিবীর অর্ধেক জনসংখ্যা শেষ হয়ে যাবে৷

মার্কিন নিউট্রিশানিস্ট ডক্টর মাইকেল গ্রেগার জানিয়েছেন, পোলট্রির থেকে যে ভাইরাস ছড়াবে তা করোনা ভাইরাসের থেকেও মানবজাতির কাছে ভয়ের কারণ হবে৷ বিজ্ঞানীদের ধারণা, প্রাথমিকভাবে কোভিড-১৯ বাদুড়দের থেকে ছড়িয়েছে৷ এতে করে এখন অবধি সারা পৃথিবীতে ৩৬৪,০০০ জন মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন৷ সারা বিশ্বে এই নতুন ধরণের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে৷

গ্রেগার তার নতুন বই ‘হাউ টু সারভাইভ আ প্যানডেমিক’ -এ জানিয়েছেন, যেখানে প্রচুর পরিমাণ মুরগি খামারে পালন করা হয়, তার থেকে যে ভাইরাস আসবে তা আরও মারাত্মক হবে৷ তিনি জানিয়েছেন, নতুন যে অতিমারী আসছে তা আমিষ প্রিয়দের জন্য ভয়ঙ্কর ভবিষ্যত নিয়ে আসছে৷

নিজের লেখায় তিনি বলেছেন, ‘যেভাবে ভাইরাস সংক্রমণ ঘটছে এক মানুষ থেকে অন্য মানুষে তাতে যদি এটা হয় নয় কখন এটা হবে এটাই প্রশ্ন৷ ’ পাখিদের থেকে যে সংক্রমণ ছড়ায় তা খুব কম সময়েই মানুষদের প্রভাব ফেলে৷ হংকংয়ে ১৯৯৭ সালে যেমন হয়েছিল H5N1৷ যদিও সে সময় ১৩ লক্ষ মুরগিতে মেরে ফেলা হয়েছিল৷ আশঙ্কার বিষয় হল, এটা কখনই পুরোপুরি নিরাময় হয়নি যে কোনও মুহূর্তে সেটা আবার ফিরে আসতে পারে৷

গ্রেগারের মতে, পোলট্রিতে যেভাবে মুরগি পালন করা হয় তা খুবই অস্বাস্থ্যকর, এ বিষযে একটু নজর দিলে এই মারণ সংক্রমণ ঠেকানো যাবে৷ তার মতে, যেভাবে ছোট জায়গার মধ্যে মুরগিদের রাখা হয় তাতে তারা নিজেদের ডানাগুলোও নাড়াতে পারে না৷ পাশাপাশি নিজেদের থেকে যে জিনিস শরীর থেকে বেরোয় তাতে অ্যামোনিয়া লেভেল বাড়িয়ে সংক্রমণের সুযোগ আরও বাড়িয়ে দেয়৷