করোনার ওষুধ পেল জর্ডান, ভারত, এবার বাংলাদেশ

0
226

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই বিজ্ঞানীরা এর প্রতিষেধক এবং ওষুধ উদ্ভাবনে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। গবেষণায় উঠে আসছে বেশ কিছু পরিচিত ম্যালেরিয়ার, এইচআইভি ও ইবোলা ভাইরাস মারার ওষুধ, কিছু অ্যান্টিবায়োটিক। নিজেই পরীক্ষা করুন আপনি করোনায় আক্রান্ত কী না

এই অবস্থায় জর্ডান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ রোগীদের ক্ষেত্রে অ্যান্টিভাইরালের পাশাপাশি, ম্যালেরিয়ার ওষুধ ‘হাইড্রোক্সি-ক্লোরোকুইন’ ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে ।

ভারতেও এই ওষুধ ব্যাবহারের অনুমোদন দিল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর)। তবে, হাইড্রোক্সি ক্লোরোকুইন নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শুধুমাত্র সঙ্কটাপন্ন রোগীদের চিকিৎসায়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও বলেন, হাইড্রোক্সি ক্লোরোকুইন ও এজিথ্রোমাইসিনের যুগলবন্দিই নাকি সেই ম্যাজিক ওষুধ, যে করবে মুসকিল আসান। এবং এই অসাধ্য সাধনের জন্য আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বা এফডিএ-কে অনেক ধন্যবাদ দিলেন তিনি।

বাংলাদেশ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরকে করোনার ওষুধ (CoronaVirus Medicine) প্রদান করেছে ডেল্টা ফার্মা। আজ সোমবার সকালে ডেল্টার এমডি ড. মো. জাকির হোসেন ঔষধ প্রশাসনের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমানের হাতে ওষুধগুলো তুলে দেন।

এ ওষুধ দিয়ে ১৮ হাজার করোনা আক্রান্তকে সুস্থ করা যাবে। এর মধ্যে আছে হাইড্রোক্সি ক্লোরোকুইন এবং এজিথ্রোমাইসিন। ডেল্টা তিন লাখ হাইড্রোক্সি ক্লোরোকুইন (Hydroxychloroquine) এবং এক লাখ ২০ হাজার এজিথ্রোমাইসিন (Azithromycin) দিয়েছেন।

জেনে নিন বাংলাদেশে কোন হাসপাতালে পাবেন করোনাভাইরাসের চিকিৎসা। এছাড়া করোনা প্রতিরোধে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) হটলাইন নম্বর, ফেসবুক পেজ, ই–মেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করা যাবে ।

বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন ওয়ান মানুষ মারা যাচ্ছে । বিশ্বের মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে গিয়েছে ১৪ হাজারেরও বেশি। আক্রান্ত ৪ লক্ষাধিক মানুষ।