গ্রামীণফোন ও রবি দুই অপারেটরের কাছ থেকে বিপুল অঙ্কের পাওনা আদায়ে এবার অনাপত্তি পত্র (এনওসি) দেওয়া বন্ধ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এতে গ্রামীণফোন ও রবি নতুন কোনো প্যাকেজ দিতে পারবে না গ্রাহকদের। পাশাপাশি তাদের নেটওয়ার্কের আওতা বাড়ানো বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান জানান, পাওনা আদায়ে ব্যান্ডউইথ সীমিত করা হয়েছিল। গ্রাহকদের অসুবিধার কথা চিন্তা করে বাধা তুলে নেওয়া হবে। তবে পাওনা টাকায় কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। সালিশে যাওয়ারও কোনো সুযোগ নেই। এনওসি বন্ধের পরও পাওনা না দিলে আইন অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

বিটিআরসির দাবি, গ্রামীণ ফোনের কাছে নিরীক্ষা আপত্তির দাবির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা এবং আরেক মোবাইল ফোন অপারেটর রবির কাছে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে তাদের।

তাগাদা দেওয়ার পরও ওই টাকা পরিশোধ না করার যুক্তি দেখিয়ে গত ৪ জুলাই গ্রামীণফোনের ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসিটি ৩০ শতাংশ এবং রবির ১৫ শতাংশ সীমিত করতে আইআইজিগুলোকে নির্দেশ দেয় বিটিআরসি।