ফেসবুক লাইভে এসে দর্শকদের সামনে কুপিয়ে স্ত্রীকে হত্যা করেছে এক যুবক। বুধবার দুপুরে ফেনীতে এই হত্যাকাণ্ডের পরপরই টুটুল নামে পঁয়ত্রিশোর্ধ ওই ব্যক্তিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। কিন্তু এই প্রতিবেদন লেখার সময়েও হত্যাকাণ্ডের ভিডিওটি ফেসবুকের দেয়ালে দেয়ালে ঘুরছিল।

ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার নূরুন্নবী বিবিসিকে বলেন, তিনটার দিকে অভিযুক্ত টুটুলকে আটক করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জের ধরেই এই হত্যাকাণ্ড।

অভিযুক্ত হত্যাকারী অবশ্য হত্যাকাণ্ডের কিছু পরেই ভিডিওটি নিজের ফেসবুক ওয়াল থেকে সরিয়ে নেয়। কিন্তু এখন অনেকেই ভিডিও শেয়ার করছে এবং উল্লেখ করছে, ডিলিট হবার আগেই ভিডিওটি তারা ডাউনলোড করে রেখেছিলেন।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়, গ্রেপ্তারকৃত টুটুল ঘরময় হেঁটে বেড়াচ্ছে। মাঝে মাঝে সে তার কৃতকর্মের সপক্ষে যুক্তি তুলে ধরছে। এক পর্যায়ে ধারালো কিছু একটা নিয়ে কেউ একজনকে উপর্যুপরি আঘাত করে সে। কিছুক্ষণ পর একজন নারীর রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায় মাটিতে।