Mustafa_Kamal_budget

কোভিড-১৯ এর মহামারীতে দেশের স্বাস্থ্যখাতের দৈন্যতা ফুটে উঠেছে স্পষ্টভাবে। এরপরও আসছে বাজেটে এ খাত আশানুরূপ বরাদ্দ পাচ্ছে না। তবে আগের চেয়ে বরাদ্দ বাড়বে।

অর্থবিভাগ সূত্র জানায়, আসছে বাজেটে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় টানা অষ্টমবারের মতো সর্বোচ্চ বরাদ্দ পেতে যাচ্ছে। আর স্বাস্থ্যখাত থাকবে পঞ্চম স্থানে। অন্যদিকে সামরিক খাতেও বরাদ্দ বাড়ছে ৪ হাজার কোটি টাকা।

বাজেটের পঞ্চম বৃহত্তম ব্যয় ধরা হয়েছে স্বাস্থ্যসেবার জন্য। এখাতে ব্যয় ধরা হচ্ছে ২৭ হাজার ৮৫০ কোটি টাকা। যা আগামী অর্থবছরের মোট জিডিপির ০.৪৪ শতাংশ। এরপরে রয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা খাতে ২৪ হাজার ৯৩৭ কোটি টাকা।

চলতি বাজেটে এ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১৯ হাজার ৯৪৫ কোটি টাকা। এরপরে রয়েছে জ্বালানি খাতে ২৪ হাজার ৮৫৩ কোটি টাকা, জননিরাপত্তা বিভাগ ২২ হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ১৭ হাজার ৯৪৫ কোটি টাকা এবং রেলপথ মন্ত্রণালয় ১৬ হাজার ৪১৯ কোটি টাকা।

এছাড়া স্থানীয় সরকার বিভাগ সর্বোচ্চ ৩৬ হাজার ১০৩ কোটি টাকা বরাদ্দের কথা বলেছেন। বরাদ্দের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী বাজেটে প্রতিরক্ষা মন্ত্রাণালয় ৩৪ হাজার ৮১৭ কোটি টাকা। আর তৃতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ পাচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় (মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক) ৩৩ হাজার ১১৯ কোটি টাকা। এরপরে রয়েছে সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগ। সেখানে বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে ২৯ হাজার ৪৪২ কোটি টাকা।

জানা গেছে, আগামী ১লা জুন জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর কাছে অর্থমন্ত্রী বাজেটের যে রূপরেখা দিয়েছেন, সেখানে তিনি বাজেটের আকার ৫ লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকার কথা বলেছেন।