বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যায় নিজের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে বৃহস্পতিবার আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতা ইফতি মোশাররফ সকাল। সকাল বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বুয়েট শাখার উপ সমাজসেবা সম্পাদক ছিলেন।

দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তিনি মহানগর হাকিম সাদবির ইয়াসির আহসান চৌধুরীর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন বলে জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ তথ্য ও প্রসিকিউসন বিভাগের কর্মকর্তা উপকমিশনার জাফর হোসেন।

এর আগে রিমান্ডে থাকা ইফতি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হলে তাকে আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ইন্সপেক্টর মো. ওয়াহিদুজ্জামান। মঙ্গলবার ছাত্রলীগের ৯ নেতা-কর্মীর সাথে সকালের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত।

জবানবন্দিতে এই আসামি কী বলেছেন- জানতে চাইলে জাফর বলেন, “কারও নাম বলেছেন কি না, নিজেকে জড়িয়েছে কি না বা নিজেকে বাইরে রেখে অন্যদের জড়িয়েছে কি না, একথা আমি বলতে পারব না। জবানবন্দি নেওয়ার পর বুয়েটছাত্র ইফতিকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন বিচারক।

বুয়েটের ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে (২১) রবিবার দিবাগত মধ্য রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা হলে ব্যাপক মারধর করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। সোমবার ভোরে হলের সিঁড়িতে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।