মানুষের জীবন জীবিকা নির্বাহের প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে অর্থ বা টাকা। যা করোনার ভয়াল থাবায় অনেকটাই বিপর্যস্ত। গেলো মাসের ২৬ তারিখ থেকে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণার সাথে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নির্দেশ দিলে অনেকটাই যেনো মাথার উপর বজ্রপাত ঘটে যাওয়ার মত অবস্থা হয় খেটে খাওয়া মানুষদের।

এমন অবস্থায় শহরের অনিশ্চিত জীবনের শঙ্কায় পড়ে শত কষ্ট উপেক্ষা করে ছোট আয়ের মানুষগুলো পাড়ি দেয় গ্রামে।

রোববার (৫ এপ্রিল) যশোর ন-১১-১১২৯ পিক-আপের ড্রামের মধ্যে লোকজন দেখা যায়। বাড়ি যাওয়ার জন্য তারা মাছের খালি ড্রামে বসে আছে।

হঠকারী একটি সিদ্ধান্তে ভোগান্তি পোহাতে হলো হাজারো মানুষকে। পেটের টানে পায়ে হেঁটে গেলো দুদিন ধরে কর্মস্থলে ফিরেছিলেন নিম্ন আয়ের মানুষ। যেখানে তুচ্ছ হয়েছিল করোনা সংক্রমণের ভয়। কিন্তু মধ্যরাতে কর্মস্থল বন্ধের সিদ্ধান্তে আবারও ফিরতে বাধ্য হন তারা।