George Floyd Death: আমেরিকার ৪০টি শহরে কারফিউ জারি করা হয়েছে

0
23
Photo Credit: AP

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিস শহরে পুলিশের হেফাজতে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক আফ্রিকান আমেরিকান নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে টানা ষষ্ঠ দিনে আমেরিকা জুড়ে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে যে, আমেরিকার প্রায় ৪০টি শহরে কারফিউ আরোপ করা হয়েছে, কিন্তু মানুষ তা উপেক্ষা করে রাস্তায় বিক্ষোভ করেছে ।

নিউ ইয়র্ক, শিকাগো, ফিলাডেলফিয়া এবং লস অ্যাঞ্জেলেসে বিক্ষোভকারীদের সাথে দাঙ্গা পুলিশ সংঘর্ষ চলছে । বিক্ষোভ থামাতে পুলিশ রাবার বুলেট এবং টিয়ার গ্যাস ছুড়েছে। বেশ কয়েকটি শহরে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভকারীরা পুলিশের কয়েকটি গাড়িতে আগুন দেয়, দোকানপাট ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নি সংযোগের ঘটনাও ঘটে।

এই বিক্ষোভের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে রোববার লন্ডন, বার্লিন এবং টোরান্টোর মতো শহরেও বিক্ষোভ করেছে শত শত মানুষ।

যুক্তরাজ্যে ন্যাবিচারের দাবিতে স্লোগান দেয়। পাশাপাশি যুক্তরাজ্যেও বর্ণবাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।

জার্মানির বার্লিনেও জর্জ ফ্লয়েডের ন্যায়বিচারের দাবিতে কয়েকশ’ বিক্ষোভকারী যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ করেছে । ‘কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা’ বন্ধের দাবিতেও স্লোগান দেয় তারা।

কানাডার টোরান্টো শহরেও ফ্লয়েড হত্যা, বর্ণবাদ এবং পুলিশের উপস্থিতিতে স্থানীয় এক কৃষ্ণাঙ্গ নারীর মৃত্যুর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ করেছে।

গত রোববার থেকে মার্কিন রিজার্ভ বাহিনী – ন্যাশনাল গার্ড তাদের ১৫ হাজার কর্মী ১৫ টি রাজ্যে এবং ওয়াশিংটন ডিসিতে হোয়াইট হাউজের মোতায়েন কর হয়েছে ।

সোমবার জালনোট ব্যবহার করার অপরাধে শ্বেতাঙ্গ এক পুলিশ কর্মকর্তার হাতে ৪৬ বছর বয়সী কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু হয়।

ভিডিওতে দেখা গেছে, পুলিশের এক কর্মকর্তা ফ্লয়েডের ঘাড়ের ওপর হাঁটু দিয়ে তাকে মাটিতে চেপে ধরে রেখেছেন। এসময় ফ্লয়েড বলেছেন, ‘প্লিজ, আমি শ্বাস নিতে পারছি না’, ‘আমাকে মারবেন না।’

এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মিনিয়াপোলিসসহ যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি শহরে পুলিশি সহিংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু হয়।

এ ঘটনায় নিরস্ত্র ফ্লয়েডের ঘাড়ের ওপর হাঁটু রেখে ৪৪ বছর বয়সী পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক শভিনসহ চারজন পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ফ্লয়েডকে হত্যার অভিযোগে ডেরেক শভিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১ জুন) তার আদালতে হাজির হওয়ার কথা রয়েছে।