করোনাভাইরাসমুক্ত নিউজিল্যান্ড

0
17

নিউজিল্যান্ডে কোভিড-১৯ রোগ থেকে সেরে ওঠা সর্বশেষ ব্যক্তিকে আইসোলেশনমুক্ত করার পর দেশের ভেতরের সব বিধি-নিষেধ তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। গতকাল সোমবার দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশটিতে এসব ঘটনা ঘটে।

প্রধানমন্ত্রী আরডার্ন গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, তাঁর দেশে করোনাভাইরাস মহামারিজনিত সতর্কতার মাত্রা দ্বিতীয় ধাপ থেকে প্রথম ধাপে নামিয়ে আনা হচ্ছে। ফলে গতকাল দিবাগত মধ্যরাতের পর থেকে দেশের কোথাও আর সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মেলামেশার বাধ্যবাধকতা থাকছে না। তবে সীমান্তে কড়াকড়ি থাকছে। বিদেশ থেকে আসা সবার করোনাভাইরাস পরীক্ষা এখনো বাধ্যতামূলক রাখা হচ্ছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, নিউজিল্যান্ড করোনাভাইরাসকে সুযোগই দেয়নি। ৫ সপ্তাহের কড়া একটি লকডাউন মেনে চলে দেশটি। সিদ্ধান্ত খুব দ্রুত আসে এবং কোনো দ্বিধা ছিল না সেখানে। ১৯শে মার্চ যখন লকডাউন হয় নিউজিল্যান্ড, তখন দেশটিতে রোগীর সংখ্যা ছিল ৩০।

এপ্রিলের শেষ দিকেই নতুন করে রোগীর সংখ্যা শূন্যের কোটায় চলে আসে। মে মাস থেকেই নানাভাবে তুলে নেয়া হয় কড়াকড়ি। নিউজিল্যান্ডে মোট এক হাজার ৫০৪ জন কোভিড-১৯ রোগী পাওয়া গেছে এবং মারা গেছেন ২২ জন। দেশটিতে এখন কোনো কোভিড-১৯ রোগী নেই। গেল ২ সপ্তাহে শনাক্ত হয়নি নতুন কেউ।