করোনায় বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়ে একের পর এক বেসামাল মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার তিনি বলেছেন, ‘করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা বেশি হচ্ছে বলেই যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে। পরীক্ষা বন্ধ করলেই সংক্রমণ কমে যাবে।’

সোমবার বয়স্ক নাগরিকদের সহযোগিতা-বিষয়ক এক সভায় এসব কথা বলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর আগে করোনাভাইরাস রোধে শরীরে জীবাণুনাশক ইনজেকশন নেয়ার পরামর্শ দিয়ে বিতর্কের জন্ম দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এক টুইটবার্তায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, ‘অন্য দেশের চেয়ে আমাদের দেশে করোনার টেস্টিং ব্যাপক আকারে এবং উন্নত পদ্ধতিতে হচ্ছে (এটা আমরা খুব ভালো কাজ করছি)। এ কারণেই অনেক বেশি সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে। টেস্টিং না হলে বা দুর্বল পদ্ধতিতে টেস্টিং হলে দেখা যেত, এই দেশে করোনা সংক্রমিত কোনো রোগীই প্রায় নেই।’

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পুনর্নির্বাচনের ঠিক আগে করোনা মহামারি অনেক কিছুই ওলট-পালট করে দিয়েছে। বিভিন্ন রাজ্যে তাঁর জনপ্রিয়তা এখন বেশ নিচের দিকে। আমেরিকার ভোটের রাজনীতিতে মধ্যপন্থী বা দোদুল্যমান ভোটারদেরই প্রধান শক্তি হিসেবে উঠে আসতে দেখা যায়। এসব মধ্যপন্থী ভোটারের কাছে তাঁর অবস্থা এখন মোটেই ভালো ঠেকছে না।