দীর্ঘ ৪৩ বছর পর প্রথমবারের মতো মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার জন্য ২ জন জল্লাদকে নিয়োগ করেছে শ্রীলংকা। সামনে ৪ টি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতেই এই নিয়োগ। দেশটিতে ১৯৭৬ সালের পর থেকে আর কোন মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়নি।

দেশটি এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে জল্লাদ পদের জন্য বিজ্ঞাপন দেয়। এতে ১০০টির বেশি আবেদন পরেছিল। বিজ্ঞাপনে প্রার্থীদের ‘দৃঢ় নৈতিক চরিত্রের অধিকারী হতে হবে’ বলে উল্লেখ করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপনে আরো উল্লেখ ছিল, প্রার্থীকে ‘মানসিকভাবে শক্ত’ হতে হবে এবং ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সী শ্রীলঙ্কান পুরুষরাই এই পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

অবশেষে জল্লাদ পদে দুজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। দুই সপ্তাহের মধ্যে নিয়োগকৃতদের প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির কারা কর্তৃপক্ষের একজন মুখপাত্র।

এদিকে এই নিয়োগের প্রতিবাদ করছেন দেশটির মৃত্যুদণ্ডবিরোধীরা। বছর পাঁচেক আগে শ্রীলঙ্কার সর্বশেষ জল্লাদ ফাঁসির বেদি দেখার পর পদত্যাগ করেছিলেন।

জল্লাদদের নিয়োগের পর দেশটির প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা ঘোষণা দিয়েছেন যে মাদক ব্যাবসার সাথে জড়িত ওই চারজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে।

শ্রীলংকায় খুন, ধর্ষণ এবং মাদক কারবারিদের জন্য শাস্তি হল মৃত্যুদণ্ড। কিন্তু শাস্তি ঘোষণা করা হলেও ১৯৭৬ সালের পর থেকে কোন মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়না।