রাশিয়ার অ্যাটলান্টিসে প্রায় ২১৩৭ বছর আগের একটি কবরের সন্ধান পেয়েছেন প্রত্নতত্ত্ববিদরা। অল্পবয়সী এক তরুণীর ওই কবরে আধুনিক যুগের আইফোন মডেলের মতো দেখতে একটি বস্তু পাওয়া গেছে।

যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, রাশিয়ার বৃহত্তম বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাছে আলার জলাধারের নিচে সমাধিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, কবরটি ২ হাজার ১৩৭ বছর আগে জিওনগু শাসন আমলের এক ধনী ও সম্ভ্রান্ত হুন তরুণীর। ওই তরুণী দক্ষিণ রাশিয়ার গ্রামীণ অঞ্চলে থাকতেন। কবরগুলো খ্রিষ্টপূর্ব তৃতীয় শতকের।

প্রত্নতাত্ত্বিকদের ধারণা, কবরটি নাতাশা নামের কোনো এক ধনী পরিবারের সন্তানের। আইফোনের মতো দেখতে বস্তুটি আদতে তাঁর পোশাকে সেটে রাখা হয়েছিল। ‘স্মার্টফোন’টি কালো রত্ন-পাথরের খচিত। দামি পাথরগুলো সারিবদ্ধভাবে বসানো হয়েছিল।

প্রত্নতাত্ত্বিক দলের প্রধান পাভেল লিয়াসের মতে, ‘জিঅংনু আমলের এই হুন যাযাবর সম্প্রদায়ের সমাধিতে পাওয়া আইফোন সদৃশ বস্তুটি নিঃসন্দেহে আবিষ্কারের অন্যতম আকর্ষণ। নাতাশা নামের ওই তরুণীর পোশাকেই একমাত্র এমন বেল্ট দেখা গেছে। বেল্টের নকশায় থাকা চীনা উ্যঝু মুদ্রাগুলো সমাধির সময়কাল নির্ধারণে সহায়ক হয়েছে।’

রাশিয়ার আলাতে নেক্রোপলিসের কাছে বাঁধের উজানের এই জলাধারে পুরোনো কবরটি সন্ধান মিলেছে পানির ৫৬ ফুট নিচে। সেখানে আশপাশে ১১০টি কবরের সন্ধান মিলেছে। তবে কেউ কেউ বলছেন, ৩২টি কবরের সন্ধান মিলেছে।