সৌদির হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি: যুক্তরাষ্ট্রে টুইটারের সাবেক ২ কর্মী অভিযুক্ত

সৌদি আরবের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তি করায় ক্ষুদেব্লগ টুইটারের সাবেক দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে অভিযোগ আনা হয়েছে।

বুধবার সান ফ্রান্সিসকোতে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়, সৌদি আরবের ওই দুই এজেন্ট টুইটার ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিতে চেয়েছেন।

তারা যাদের তথ্য চেয়েছেন, সৌদি সরকারের অনেক পরিচিত সমালোচকও তাদের মধ্যে রয়েছেন বলে খবরে বলা হয়েছে। বিবিসির খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

আদালতের নথিতে আহমেদ আবু উআম্মাও এবং আলী আল জাবারাহ বলে দুজনের নাম দেখা গেছে।

এছাড়াও আহমেদ আল-মুতাইরি নামের তৃতীয় এক সৌদির বিরুদ্ধেও অভিযোগ তোলা হয়েছে।

নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, এই প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রে গুপ্তচরবৃত্তির জন্য মধ্যপ্রাচ্যে তাদের অন্যতম মিত্র সৌদি নাগরিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।

বুধবার সিয়াটল আদালতে হাজির হলে আবুউআম্মাওকে রিমান্ডে পাঠিয়েছেন বিচারক। শুক্রবার তার আরেকটি শুনানির কথা রয়েছে।

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের কাছে ভুয়া নথি এবং মিথ্যা বিবৃতি দেয়ার অভিযোগও রয়েছে আবুউআম্মাওয়ের বিরুদ্ধে।

২০১৫ সালে টুইটারের মিডিয়া পার্টনারশিপ ম্যানেজার পদে থাকা অবস্থায় চাকরি ছাড়েন তিনি।

আলী জাবারাহ এবং মুতাইরি দুজনই সৌদি আরবে রয়েছেন বলা ধারণা করা হচ্ছে।

সাবেক টুইটার প্রকৌশলী মুতাইরির বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালে সৌদি শাসকরা তাকে নিয়োগ দেয়ার পর ছয় হাজারের বেশি টুইটার গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়েছেন তিনি।

তদন্তকারীরা বলেন, প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা মুতাইরিকে জেরা করার পর তাকে প্রশাসনিক ছুটিতে পাঠানো হয়। এরপরই স্ত্রী ও কন্যাকে নিয়ে সৌদি পাড়ি দিয়েছেন তিনি।

টুইটারের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, কুচক্রী দল আমাদের সেবায় ব্যাঘাত ঘটাতে চাচ্ছে। আমরা বুঝতে পারছি বিশ্ব নিয়ে টুইটারে মতামত প্রকাশ করেন এমন অনেক ব্যক্তি অসম্ভব ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন। তাদের গোপনীয়তা রক্ষা এবং গুরুত্বপূর্ণ কাজ চালিয়ে যেতে আমাদের অনেক টুল রয়েছে।