চীনজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে রহস্যজনক ভাইরাস সিভিয়ার অ্যাকুইটি রেসপিরেটরি সিনড্রোম (সার্স)। সার্স ভাইরাসে আক্রান্ত নতুন ১৪০ জন রোগীকে শনাক্ত করা হয়েছে। আজ চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে মারা গেছে একজন। এ নিয়ে এই ভাইরাসে তিনজনের মৃত্যু হলো।

বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে বলেছেন, সার্স ভাইরাস মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়ছে। এরই মধ্যে চীনের প্রতিবেশী দেশ দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও থাইল্যান্ডে এই ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে।

গত বছর চীনের উহান শহরে প্রথম ভাইরাসটির অস্তিত্ব শনাক্ত করা হয়। শহরটি এক কোটি ১০ লাখ মানুষের বসবাস। অন্যদিকে থাইল্যান্ডে দুইজন, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে একজন করে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানানো হয়েছে। আক্রান্তরা সম্প্রতি উহান ভ্রমণ করেছেন।

বিশ্বব্যাপী ‘নজরে’ আসা ভাইরাসটি ঠেকাতে এরইমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে বিভিন্ন দেশের বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। সিঙ্গাপুর, হংকং এবং জাপানের রাজধানী টোকিওর বিমানবন্দরে উহানের সব ফ্লাইটের যাত্রীদের স্ক্রিনিং (পরীক্ষা) করানো হচ্ছে।

পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বাংলাদেশের দুটি প্রধান বিমানবন্দরেও। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সর্বোচ্চ সতর্ক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে চীন থেকে আসা যাত্রীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেশে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রামে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চীন থেকে আসা যাত্রীদের স্ক্রিনিং করা হচ্ছে। চট্টগ্রাম থেকে চীনে সরাসরি ফ্লাইট না থাকলেও মধ্যপ্রাচ্য, দুবাই, ভারত হয়ে কানেকটিং ফ্লাইটে চীন থেকে অনেক যাত্রী আসেন।