যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ই-কমার্স সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আমাজন ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জেফ বেজোসের হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার অভিযোগ উঠেছিল সৌদি আরবের বিরুদ্ধে। এবার জানা গেছে, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ব্যক্তিগত ফোন থেকেই ওই ধনকুবেরের অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়। বেজোসের ফোনের ডিজিটাল ফরেনসিক পরীক্ষায়ও তার প্রমাণ মিলেছে।

হ্যাকিংয়ের ঘটনার পর বেজোসের ফোনটির ডিজিটাল ফরেনসিক বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, আমাজন ইনকরপোরশনের প্রধানের ফোন থেকে তথ্য চুরির ওই ঘটনা ঘটে ২০১৮ সালের দিকে। হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তার মোবাইল ফোনে মোহাম্মদ বিন সালমানের অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভাইরাসযুক্ত ভিডিও ফাইল পাঠানো হয়েছিল।

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় দুই ধনী ব্যক্তি যুবরাজ ও বেজোসের মধ্যে মূলত বন্ধুত্বপূর্ণ বার্তা আদানপ্রদান হতো। ২০১৮ সালের ১ মে হোয়াটসঅ্যাপে তারা একই ধরনের বার্তা বিনিময় করেন। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বেজোসের মোবাইল ফোন থেকে বিপুল পরিমাণ তথ্য চুরি হয়ে যায়।

অন্যদিকে হ্যাকার খুঁজে বের করার দায়িত্বে নিয়োজিত তদন্তকারী সংস্থার প্রধান গাভিন দ্য বেকার ওয়েবসাইট জানায়, ‘এটা স্পষ্ট, সৌদি যুবরাজ ওয়াশিংটন পোস্টকেই তার সবচেয়ে বড় শত্রু মনে করেছিলেন। তাই সৌদি সরকারই বেজোসের ফোন হ্যাক করিয়েছিল।’