এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে করোনা সংক্রমণে ভুগছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তবে হাসপাতালে ভর্তি না হয়ে ঘরেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি। রবিবার (৫ এপ্রিল) হাসপাতালে ভর্তি হন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

সে সময় ডাউনিং স্ট্রিটের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ছোটখাটো কিছু স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

একদিনের মাথায় সোমবার (৬ এপ্রিল) ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ডাউনিং স্ট্রিটের এক বিবৃতিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসের লক্ষণ বহাল থাকায় প্রধানমন্ত্রী লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালের চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন। একই সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাবের কাছে ব্রিটিশ সরকারের দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়েছে।