ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৭ উইকেটে হারাল বাংলাদেশ, সাকিবের সেঞ্চুরি

0
91
sakib
Image: ICC Twitter

সাকিব আল হাসানের সেঞ্চুরি ও লিটন দাসের হাফ সেঞ্চুরির উপর ভর করে বাংলাদেশ সহজেই ৭ উইকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাল । এই জয়ের ফলে বিশ্বকাপের পয়েন্ট তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন পঞ্চম ।

৪১.৩ ওভারে বাংলাদেশ তাদের কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে যায় । সাকিব ১২৪ রান (৯৯ বলে ১৬ চার ) ও লিটন ৯৪ (৪টি ছক্কা ও আটটি চার ) রান করে অপরাজিত থাকেন ।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন সাকিব। ওয়ানডেতে এটি তার নবম সেঞ্চুরি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম।

ওয়ানডেতে এটাই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রানের তাড়া করে যায় পেল । এর আগের বিশ্বকাপ আসরে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৩১৮ রান করে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ ।

টন্টনের ছোট মাঠে টস জিতে বোলিংই বেছে নিল মাশরাফি। বাংলাদেশের কোন বোলারই তাদের ক্যারিবিয়ানদের রানের গতি ধামাতে পারেনি । ৮ উইকেটে হারিয়ে ওয়েস্টইন্ডিজরা ৩২১ রান করে ।

ইনিংসের চতুর্থ ওভারেই কোন রান না করে সাইফুদ্দিনের বলে আউট হন গেইল। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে এভিন লুইস-শাই হোপ মাইল ১১৬ রানের জুটি গড়েন। লুইস আক্রমণাত্মক খেলে ৭০ রান করে সাকিবের শিকার হন । তার বিদায়ের পর সাকিবের বলে ২৫ রান করে সৌম্যর হাতে ক্যাচ দেন পুরান।

তবে বাংলাদেশ বোলারদের বেধড়ক পিটিয়ে ২৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন হেটমায়ার । শেষ পর্যন্ত মুস্তাফিজের বলে ৪০তম ওভারে ৫০ রান করে সাজ ঘরে ফায়ার যান । আন্দ্রে রাসেল শূন্য রানে আউট হলেও অধিনায়ক হোল্ডার ১৫ বলে ৩৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। ড্যারেন ব্র্যাভোর ১৯ রানে তিনশো পার হয় ক্যারিবীয়দের স্কোর।

৫০ তম ওভারের শেষ বলে ড্যারেন ব্রাভোকে বোল্ড করেন সাইফউদ্দিন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ উইকেটে করে ৩২১ রান করে ইনিংস শেষ করে।

বাংলাদেশের সাইফউদ্দিন ৭২ রানে ৩টি, স্তাফিজ ৫৯ রানে তিনটি ও সাকিব দুটি উইকেট পান।

৩২২ রানের বিশাল লক্ষ্যে খেলতে নেমে বিশ্বকাপে নিজেদের সর্বোচ্চ রান তাড়া করতে গিয়ে দলীয় ৫২ রানে বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারায় । সৌম্য ২৩ বলে ২৯ রান করেন।

এরপর সাকিব-তামিম তৃতীয় উইকেটে যোগ করেন ৬৯ রান। তামিম ৪৮ রান করে রানআউট হওয়ার পর মুশফিক ১ রান করে আউট হলে বাংলাদেশ শিবিরে কিছুটা হতাশা নেমে আসে ।

তবে সেই শঙ্কা উড়িয়ে দিল সাকিব-লিটন দাসের জুটি। ৮৩ বলে ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সাকিব। একই সঙ্গে ওয়ানডেতে দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে ৬ হাজার রান পূর্ণ করেছেন এই বাংলাদেশি অলরাউন্ডার ।

অন্যদিকে ৪৩ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন লিটন দাস। ১৮৯ রানের জুটি গড়ে অপিরাজিত ছিলেন সাকিব-লিটন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

উইন্ডিজ: ৫০ ওভারে ৩২১/৮ (গেইল ০, লুইস ৭০, হোপ ৯৬, পুরান ২৫, হেটমায়ার ৫০, রাসেল ০, হোল্ডার ৩৩, ব্রাভো ১৯, থমাস ৬*; মাশরাফি ০/৩৭, সাইফউদ্দিন ৩/৭২, মোস্তাফিজ ৩/৫৯, মিরাজ ০/৫৭, মোসাদ্দেক ০/৩৬, সাকিব ২/৫৪)।

বাংলাদেশ: ৪১.৩ ওভারে ৩২২/৩ (তামিম ৪৮, সৌম্য ২৯, সাকিব ১২৪*, মুশফিক ১, লিটন ৯৪*; কটরেল ০/৬৫, হোল্ডার ০/৬২, রাসেল ১/৪২, গ্যাব্রিয়েল ০/৭৮, থমাস ১/৫২, গেইল ০/২২)।

ফল: বাংলাদেশ ৭ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ)।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুস্তাফিজুর রহমান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল: জেসন হোল্ডার, ড্যারেন ব্রাভো, শেলডন কটরেল, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, ক্রিস গেইল, শিমরন হেটমায়ার, শাই হোপ, এভিন লুইস, নিকোলাস পুরান, আন্দ্রে রাসেল, ওশান টমাস।