Image source: ICC/twitter

মাঠে খেলছিলেন বিরাট কোহলি-রোহিত শর্মারা, প্রার্থনায় পুরো উপমহাদেশ! শুধু ক্রিকেট নয়, সব ধরনের খেলা মিলেই হয়তো এই প্রথম কোনো ম্যাচের ভারতের জয় কামনা করেছে পুরো উপমহাদেশ।

দর্শকের ভূমিকায় থাকা বাংলাদেশ, পাকিস্তান কিংবা শ্রীলঙ্কা—সবার সেমিফাইনাল ভাগ্যই যে এ ম্যাচের ওপর নির্ভর করছে! ১৭৬ কোটি মানুষ অধ্যুষিত মানুষের প্রার্থনা কাজে আসেনি। ইংল্যান্ডের কাছে ৩১ রানে হেরে গেছে ভারত। দুই ম্যাচ হাতে নিয়েও বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে শ্রীলঙ্কার।

শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার শঙ্কা জেগেছিল। শেষ পর্যন্ত তারা ঘুরে দাঁড়ালো ভারতকে ৩১ রানে হারিয়ে।

রবিবার বার্মিংহামে বিরাট কোহলির দলকে এই বিশ্বকাপে প্রথম হারের তেতো স্বাদ দিয়ে টিকে রইলো স্বাগতিকরা।

জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরি এবং জেসন রয় ও বেন স্টোকসের হাফসেঞ্চুরিতে ৭ উইকেটে ৩৩৭ রান করেছিল ইংল্যান্ড। জবাবে ৫ উইকেটে ২৬৮ রান করে ভারত।

এই জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে পয়েন্ট টেবিলে সেরা চারে ঢুকলো ইংল্যান্ড। ৮ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে পাকিস্তানকে (৯) টপকে চতুর্থ স্থানে তারা। এক ম্যাচ কম খেলে ১১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানেই আছে ভারত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড: ৫০ ওভারে ৩৩৭/৭ (রয় ৬৬, বেয়ারস্টো ১১১, রুট ৪৪, মর্গ্যান ১, স্টোকস ৭৯, বাটলার ২০, ওকস ৭, প্লানকেট ১*, আর্চার ০*; শামি ১০-১-৬৯-৫, বুমরাহ ১০-১-৪৪-১, চেহেল ১০-০-৮৮-০, পান্ডিয়া ১০-০-৬০-০, কুলদীপ ১০-০-৭২-১)

ভারত: ৫০ ওভারে ৩০৬/৫ (রাহুল ০, রোহিত ১০২, কোহলি ৬৬, পান্ত ৩২, পান্ডিয়া ৪৫, ধোনি ৪২*, কেদার ১২*; ওকস ১০-৩-৫৮-২, আর্চার ১০-০-৪৫-০, প্লানকেট ১০-০-৫৫-৩, উড ১০-০-৭৩-০, রশিদ ৬-০-৪০-০, স্টোকস ৪-০-৩৪-০)

ফল: ইংল্যান্ড ৩১ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ:  জনি বেয়ারস্টো