ক্রিকেট ফেরাতে আইসিসির গাইডলাইন

0
31
ICC postpone qualification events until end of June

মাঠে ক্রিকেটার আর আম্পায়ারদের মাঝে থাকতে হবে সামাজিক দূরত্ব। নিজেদের ক্যাপ, চশমা বা সোয়েটার আম্পায়ারের কাঁধে তুলে দেয়া যাবে না, খেলোয়াড়দের নিজেদেরই বহন করতে হবে- এমনসব নতুন নিয়ম-নির্দেশনায় অভ্যস্ত হতে হবে মাঠে ক্রিকেট ফিরলে। খেলোয়াড়দের জন্য এসব গাইডলাইন তৈরি করে দিয়েছে আইসিসি।

আইসিসির পক্ষে জানানো হয়েছে, ‘মাঠে খেলোয়াড় এবং আম্পায়ারদের অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব মানতে হবে। খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত সরঞ্জামাদি আম্পায়ার কিংবা সতীর্থ খেলোয়াড়কে দেয়া যাবে না। আম্পায়ারদের মাঠে বল ধরার সময় গ্লাভস পরিধানে উৎসাহী করা হয়েছে।’

অনুশীলনে সবার সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে বলা হয়েছে। খেলোয়াড়েরা যেন সব সময় মাঠে কিংবা মাঠের বাইরে ১.৫ মিটার দূরত্ব মেনে চলে (অথবা সরকারের নির্দেশনা যেটা বলে)। ব্যক্তিগত ব্যবহার্য জিনিসের ব্যবহারের আগে ও পরে ভালোভাবে স্যানিটাইজ করতে হবে।

খেলার মাঠে কিংবা ড্রেসিংরুমে ভাগাভাগি করতে হয় এমন জিনিস ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। অনুশীলনের জন্য পুরোপুরি তৈরি হয়ে মাঠে আসতে বলা হয়েছে। অনুশীলনে এসে খেলোয়াড়দের গোসল করতে ও ড্রেসিংরুম ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। অনুশীলন শুরু হবে চার ধাপে।

এক ধাপ থেকে অন্য ধাপে যাওয়া নির্ভর করবে সরকারের বিধিনিষেধের ওপর। প্রথম ধাপে হবে খেলোয়াড়েরা অনুশীলন করবেন এককভাবে। দ্বিতীয় ধাপে অনুশীলন হবে দুই-তিন জনে, সেটিও সামাজিক দূরত্ব মেনে। তৃতীয় ধাপে কিছুটা বড় দলে (১০ জনের কম) খেলোয়াড় ও একজন কোচ থাকতে পারবেন। আর চতুর্থ ধাপে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পুরো দল এক সঙ্গে অনুশীলন করতে পারবে।