Image source: Cricket World Cup/twitter

নভেম্বরের শেষের দিকে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাচ্ছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করলো ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড-ইসিবি। সফরে সমান তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে ইংলিশরা। দুই দেশের সরকার সিরিজ আয়োজনে সম্মত হওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সফরকালে অতিথি ইংল্যান্ড দল কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় অনুশীলনের সুযোগ-সুবিধা পাবে বলে নিশ্চিত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড।

কোভিড-১৯ প্রোটোকলের কারণে ইংল্যান্ড দল দক্ষিণ আফ্রিকা উড়াল দেবে ১৬ নভেম্বর। ক্যাম্প করবে কেপ টাউনে এবং অনুশীলন করবে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স ক্রিকেট ক্লাব মাঠে। প্রথম টি-টোয়েন্টির আগে নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে ইংলিশরা।

দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার যুক্তরাজ্যকে করোনাভাইরাসের ‘উচ্চ ঝুঁকি’ হিসেবে চিহ্নিত করায় এই সফর নিয়ে শঙ্কা জেগেছিল।

করোনাভাইরাসের প্রাদুভার্বে গত মার্চে ভারত সফর থেকে ফেরার পর এটিই হবে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম সিরিজ। আর ইংল্যান্ডের প্রথম বিদেশ সফর।

আগামী ২৭ নভেম্বর প্রথম টি-টোয়েন্টি হবে কেপ টাউনে। পার্লে পরের ম্যাচ ২৯ নভেম্বর, ১ ডিসেম্বর তৃতীয়টি আবার কেপ টাউনে। একই মাঠে ৪ ডিসেম্বর হবে প্রথম ওয়ানডে। ৬ ডিসেম্বর দ্বিতীয় ওয়ানডে পার্লে, আর ৯ ডিসেম্বর তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি হবে কেপ টাউনে।