অভিজাত ফরম্যাট টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা ফিরিয়ে আনতে অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। পিঙ্ক বল টেস্ট, ডে-নাইট টেস্ট, টেস্ট জার্সিতে নম্বর এরকম অনেক অভিনব উদ্যোগের সঙ্গে যোগ হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ।

একদিনের বিশ্বকাপ প্রথম বার জিতেছে ইংল্যান্ড। বিশ্ব টেস্ট চ্য়াম্পিয়নশিপে বাইশ গজের টেস্ট খেলিয়ে প্রথমসারির ন’টি দল অংশ নেবে। অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, ইংল্য়ান্ড, ভারত, নিউজিল্য়ান্ড, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ খেলবে।

মোট ২৭টি সিরিজ ও ৭১টি টেস্ট হবে দু’বছর ধরে।ডব্লিউটিসি ফাইনালে প্রথম দু’টি দল অংশ নেবে। শিরোপা নির্ধারক ম্য়াচটি হবে ইংল্য়ান্ডে। ক্রিকেটের দীর্ঘতম ফর্ম্যাটকে আরও চিত্তাকর্ষক করে তুলে তার গুরুত্ব বাড়াতেই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ভাবনা ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা।

২১ মাসের এই দীর্ঘ বিশ্বকাপে প্রতিটা দেশ খেলবে ৬টি করে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। এক একটি সিরিজের পয়েন্ট হবে ১২০। প্রতিটা দেশের মোট পয়েন্ট হবে ৭২০। তাই কোনো দেশের বেশি বা কম ম্যাচ খেলা দিয়ে পয়েন্টের হিসাব বিচার করা হবে না।

২০২১ সালের ৩০ এপ্রিলের পর পয়েন্টের হিসেবে প্রথম দুই দলের মধ্যে জুন মাসে হবে ফাইনাল। সেই ফাইনাল খেলা হবে ইংল্যান্ডে। তার মাধ্যমেই প্রথম টেস্ট বিশ্বচ্যাম্পিয়ন পাবে ক্রিকেট বিশ্ব।