ডানসিং বলার আব্দুল কাদির আর নেই

0
205
Image source: ICC

পাকিস্তানের কিংবদন্তি স্পিন বলার আব্দুল কাদির আর নেই । শুক্রবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন ) । মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৩। দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ কাদিরকে লাহোরের এক স্থানীয় হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। খানের ছেলে সালমান কাদির তার বাবার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এই ক্রিকেটার মৃত্যুকালে স্ত্রী, চার ছেলে ও এক কন্যা রেখে গেছেন , পাকিস্তানের তারকা ব্যাটসম্যান উমর আকমল তার মেয়ের জামাই ।

লাহোরে তার মৃত্যুর সংবাদে পাকিস্তান ক্রিকেট মহলে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। আব্দুল কাদিরের মৃত্যুর সংবাদে শোক জানিয়েছে পাকিস্তান সরকার।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এক টুইট বার্তায় কাদিরের মৃত্যুতে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং তার পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান ।

আব্দুল কাদিরের জন্ম ১৯৫৫ সালে। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই লেগ স্পিনার ছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ড্যানসিং বোলার হিসাবে খ্যাত আব্দুল কাদিরের প্রথম টেস্ট অভিষেক হয় ১৯৭৭ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

আর ১৯৮৩ সালে তিনি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ান ডে খেলেন। মোট ৬৭টি টেস্ট ও ১০৪টি ওয়ান ডে খেলেছেন এই কিংবদন্তী ক্রিকেটার। ১৯৯৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সর্বশেষ ওয়ান ডে খেলেন তিনি।

বৈচিত্রময় জীবনের অধিকারী কাদের বর্তমানে পাকিস্তানের প্রথানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বে ফয়সালাবাদে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৫৬ রানে ৯ উইকেট পেয়েছিলেন ।

পরে ধারাভাষ্যকার এবং সম্প্রতি তিনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচক ছিলেন। ২০০৯ সালে প্রধান নির্বাচক হিসাবে কাজ করেছিলেন এবং ইংল্যান্ডে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি শিরোপা অর্জন করেছিল তাঁর দ্বারা নির্বাচিত দলটি।

তার চার পুত্র রেহমান, ইমরান, সুলামান ও উসমান পাকিস্তানে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলেন এবং তার কনিষ্ঠ পুত্র উসমান বাবার মতো লেগ স্পিনার এবং সে গত মৌসুমে বিগ ব্যাশ টি-টোয়েন্টি লিগে অংশ নিয়েছিলেন ।

ক্রিকেট পন্ডিত এবং লেখকরা বিশ্বাস করেন যে কাদিরের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি ৭০ এবং ৮০ এর দশকের সময় যখন পেস বোলারদের আধিপত্য ছিল বিশ্ব ক্রিকেটে তখন কাদির স্পিন বোলিংকে টিকিয়ে রেখে ছিলেন ।

বেঁচে থাকলে ১৫ সেপ্টেম্বর ৬৪তম জন্ম দিন পালন করা হত ।