Image Source: @OfficialSLC/twitter

টি-টোয়েন্টির এক নম্বর দল পাকিস্তান। সঙ্গে ছিল ঘরের মাঠের দর্শক-সমর্থক। এরপরও দ্বিতীয় সারির শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে তারা। সিরিজ হারের পর লাহোরের শেষ টি-টোয়েন্টিও হেরেছে স্বাগতিকরা।

বুধবার গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি শ্রীলঙ্কা জিতেছে ১৩ রানে। ওশাডা ফার্নান্ডোর হার না মানা ঝড়ো ৭৮ রানের ইনিংসে শ্রীলঙ্কা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে স্কোরে জমা করে ১৪৭ রান। এই লক্ষ্যে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানের বেশি করতে পারেনি পাকিস্তান। ফলে তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০তে জিতে শ্রীলঙ্কা হোয়াইটওয়াশ করেছে স্বাগতিকদের।

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে বুধবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার। প্রথম চার ব্যাটসম্যানের কেউ যেতে পারেননি বেশিদূর। পরিস্থিতি হতে পারতো আরও খারাপ। পাকিস্তানের বাজে ফিল্ডিংয়ের জন্য বেঁচে যায় তারা।

৫৮ রানে ৪ উইকেট হারানো সফরকারীদের প্রায় একার চেষ্টায় লড়াই করার মতো সংগ্রহ এনে দেন অভিষিক্ত ওশাদা ফার্নান্দো। ৪৮ বলে তিন ছক্কা ও আট চারে ৭৮ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। পেসার মোহাম্মদ আমির ৩ উইকেট নেন ২৭ রানে।

শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে সফল বোলার ভানিন্দু হাসারঙ্গা। ম্যাচ ও সিরিজসেরার পুরস্কার জেতা এই স্পিনার ৪ ওভারে ২১ রান দিয়ে পেয়েছেন ৩ উইকেট। ২ উইকেট নিয়েছেন লাহিরু কুমারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ২০ ওভারে ১৪৭/৭ (গুনাথিলাকা ৮, সামারাবিক্রমা ১২, রাজাপাকসে ৩, পেরেরা ১৩, ফার্নান্দো ৭৮*, শানাকা ১২, মাদুশঙ্কা ১, হাসারাঙ্গা ৬; ইমাদ ৪-০-১৮-১, শিনওয়ারি ৪-০-৪৩-০, আমির ৪-০-২৭-৩, শাদাব ৪-০-৩২-০, ওয়াহাব ৪-০-২৬-১)

পাকিস্তান: ২০ ওভারে ১৩৪/৬ (ফখর ০, বাবর ২৭, হারিস ৫২, সরফরাজ ১৭, ইমাদ ৩, আসিফ ১, ইফতিখার ১৭*, ওয়াহাব ১২*; রাজিথা ৪-০-১৭-১, মাদুশঙ্কা ৪-০-৩৬-০, গুনাথিলাকা ১-০-১৫-০, কুমারা ৪-০-২২-০, হাসারাঙ্গা ৪-০-২১-৩, সান্দাক্যান ৩-০-২০-০)

ফল: শ্রীলঙ্কা ১৩ রানে জয়ী

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে জয়ী শ্রীলঙ্কা

ম্যান অব দা ম্যাচ: ভানিদু হাসারাঙ্গা

ম্যান অব দা সিরিজ: ভানিদু হাসারাঙ্গা