Image source: ICC / Twitter

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর ঘরের মাটিতে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ। সেটিও আবার ৩৩তম জন্মদিনে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি ডেভিড ওয়ার্নারের জন্য অনেক দিক দিয়েই ছিল বড় উপলক্ষ। সেই উপলক্ষকে বাঁহাতি ওপেনার স্মরণীয় করে রাখলেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম সেঞ্চুরিতে।

সঙ্গে অ্যারন ফিঞ্চ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়া পেল পাহাড়সম সংগ্রহ। বোলারদের দারুণ বোলিংয়ে এরপর ধরা দিল রেকর্ড ব্যবধানের জয়। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে শ্রীলঙ্কাকে ১৩৪ রানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

অ্যাডিলেডে টস জিতে শুরুতে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাটিংয়ে পাঠান লঙ্কান অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গা। প্রথমে ব্যাটিংয়ের এই সুযোগ কাজে লাগান ডেভিড ওয়ার্নারই। বল টেম্পারিং স্ক্যান্ডেলের পর ঘরের মাঠে এই প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ ওপেনিং করতে নেমেছিলেন। দীর্ঘদিন পর এই ফেরাটা তিনি দলীয়ভাবে করে রাখলেন রেকর্ডসমৃদ্ধ। তার তাণ্ডব চালানো সেঞ্চুরিতে ২ উইকেটে ২৩৩ রানের বড় সংগ্রহ গড়ে অস্ট্রেলিয়া।

রান তাড়ায় মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্সের বোলিং তোপে ১৩ রানের মধ্যেই প্রথম তিন ব্যাটসম্যানকে হারায় শ্রীলঙ্কা। লোয়ার মিডল ও লোয়ার অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা এরপর বলার মতো কিছু করতে পারেননি। শানাকার ১৭ ও মালিঙ্গার অপরাজিত ১৩ রানের ইনিংস কেবল পরাজয়ের ব্যবধানই কমিয়েছে। পুরো ২০ ওভার ব্যাট করে এত কম রান এর আগে কখনোই করেনি লঙ্কানরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ২৩৩/২ (ফিঞ্চ ৬৪, ওয়ার্নার ১০০*, ম্যাক্সওয়েল ৬২, টার্নার ১*; মালিঙ্গা ৪-০-৩৭-০, রাজিথা ৪-০-৭৫-০, প্রদিপ ৪-০-২৮-০, সান্দাক্যান ৪-০-৪১-১, হাসারাঙ্গা ৩-০-৪২-০, শানাকা ১-০-১০-১)

শ্রীলঙ্কা: ২০ ওভারে ৯৯/৯ (গুনাথিলাকা ১১, মেন্ডিস ০, রাজাপাকসে ২, কুসল ১৬, ফার্নান্দো ১৩, শানাকা ১৭, হাসারাঙ্গা ৫, সান্দাকান ৬, মালিঙ্গা ১৩*, রাজিথা ০, প্রদিপ ৮*; স্টার্ক ৪-০-১৮-২, রিচার্ডসন ৪-০-২১-০, কামিন্স ৪-০-২৭-২, জাম্পা ৪-০-১৪-৩, অ্যাগার ৪-০-১৩-১)

ফল: অস্ট্রেলিয়া ১৩৪ রানে জয়ী।

ম্যান অব দা ম্যাচ: ডেভিড ওয়ার্নার।