ব্রাজিলের জার্সিতে শততম ম্যাচ খেলার দুর্লভ কীর্তি খুব বেশি মানুষের নেই। সপ্তম ব্রাজিলিয়ান হিসেবে এই তালিকায় ঢুকেছেন নেইমার। যদিও তার স্মরণীয় দিনটিতে সেলেসাওদের ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে সেনেগাল। এই নিয়ে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে জয়শূন্য রইলো তিতের দল। সেপ্টেম্বরে আগের ম্যাচে পেরুর কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল তারা।

দুই ফরোয়ার্ডের দারুণ বোঝাপড়ায় ম্যাচের নবম মিনিটে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। ডান দিক থেকে একজনকে কাটিয়ে দ্রুত এগিয়ে ডি-বক্সে রক্ষণচেরা পাস বাড়ান গাব্রিয়েল জেসুস। বল ধরে কোনাকুনি চিপ শটে গোলরক্ষকের উপর দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড ফিরমিনো।

৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে সেনেগাল সমতা ফেরায় বিরতির ঠিক আগে। পেনাল্টির সুবাদে গোলটি করেন ফামারা দিদিউ। সেনেগালের আক্রমণে নেতৃত্ব দেওয়া সাদিও মানের কল্যাণে মিলেছে এই পেনাল্টি। একক প্রচেষ্টায় তিনি ঢুকে পড়েছিলেন ব্রাজিলের বিপজ্জনক অঞ্চলে। তাকে পেছন থেকে ফাউল করে বসেন মার্কিনিয়োস ও সিলভা।

দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলই আক্রমণে শাণিয়েছিল ব্যবধান বাড়াতে। তবে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে সেসব। শেষ দিকে ফ্রি কিক থেকে দুবার লক্ষ্যের কাছে গিয়েছিলেন নেইমার। বল একবার নেটের ওপর দিয়ে গেলে, পরেরটি রুখে দিয়েছেন গোলকিপার। সেনেগালও গোল পেতে বসেছিল মানের আক্রমণে।

পুরো ৯০ মিনিটই মাঠে ছিলেন তিনি। কিন্তু তার শট গিয়ে লেগেছে বারে। আগামী রোববার আরেক প্রীতি ম্যাচে নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হবে ব্রাজিল।