Image Source: @realmadriden/twitter

চোটের জন্য নেই নিয়মিত খেলোয়াড়দের অনেকে। রিয়াল মাদ্রিদের খেলায় পড়ল এর প্রভাব। জিনেদিন জিদানের শিষ্যদের এলোমেলো ফুটবলের সুযোগ নিয়ে শুরুতেই এগিয়ে গেল মায়োর্কা। বাকি সময়ে নিজেদের জাল অক্ষত রেখে লা লিগায় স্পেনের সফলতম দলকে প্রথম হারের স্বাদ দিল তারা।

নিজেদের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছে ছয় মৌসুম পর স্পেনের শীর্ষ লিগে ফেরা মায়োর্কা। ২০০৯ সালের পর এটাই রিয়ালের বিপক্ষে তাদের প্রথম জয়। আর লিগে ২০০৬ সালের পর প্রথমবারের মতো মাদ্রিদের দলটির বিপক্ষে জিতল ঘরের মাঠে।

ম্যাচের শুরুতেই গোল হজম করা রিয়াল মাদ্রিদই কিন্তু খেলায় এগিয়ে ছিল। বলের দখল, আক্রমণ, প্রতিপক্ষের রক্ষণে ভয় ধরিয়ে দেওয়া; সবই হয়েছে। শুধু জালের দেখাটাই পায়নি বেনজেমারা। চোটে পড়ে রিয়ালের নিয়মিত খেলোয়াড়দের অনেকেই ছিল না একাদশে। এতে রিয়ালের খেলায় খানিকটা ছন্দপতন ঘটে।

প্রথমার্ধে এলোমেলো ফুটবল খেলা রিয়াল ছন্দে ফেরে দ্বিতীয়ার্ধে। শুরু থেকে খেলে আক্রমণাত্মক ফুটবল। দ্রুত গতিতে প্রতি আক্রমণে গিয়ে জিদানের শিষ্যদের চাপে রাখে মায়োর্কা।

৬৯তম মিনিটে প্রতি আক্রমণে দারুণ সুযোগ এসে যায় রদ্রিগোর সামনে। দ্রুত এগিয়ে যাওয়া তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ক্রস করতে একটু বেশিই দেরি করে ফেলেন। ততক্ষণে নিজেদের গুছিয়ে নেয় মায়োর্কা। স্লাইড করে এক ডিফেন্ডার ব্যর্থ করে দেন রগিদ্রোর ক্রস।

৭৪তম মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন রিয়াল ডিফেন্ডার আলভারো ওদ্রিওসোলা। ১০ জন নিয়েও দারুণ চেষ্টা করে রিয়াল। তবে লিগে প্রথম হার এড়াতে পারেনি দলটি।