ht-imam
Photo Credit: ফেসবুক থেকে নেয়া

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম (হোসেন তৌফিক ইমাম) মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।

বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

রাত সোয়া ১টার দিকে চিকিৎসকরা এইচ টি ইমামকে মৃত ঘোষণা করেন বলে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া এক ফেসবুক পোস্টে জানান।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, ইমাম কিডনিজনিত জটিলতায় ভুগছিলেন এবং দু’সপ্তাহ আগে তাকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার থেকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে।

মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রবাসী সরকারের মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব পালন করা এইচ টি ইমাম স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম মন্ত্রিপরিষদ সচিবও হন।

১৯৭৫ সালের ২৬ আগস্ট পর্যন্ত তিনি মন্ত্রিপরিষদের সচিবের দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ১৯৭৮ থেকে ১৯৮৪ পর্যন্ত সাভারের লোকপ্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি যোগাযোগ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিব হন।

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে উপদেষ্টার দায়িত্ব দেন। প্রথমে তিনি জনপ্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন। ২০১৪ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

বিগত তিনটি সাধারণ নির্বাচনে ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালে ইমাম আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যানের দায়িত্বে ছিলেন।

এইচ টি ইমামের জন্ম ১৯৩৯ সালে। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি লন্ডন স্কুল অফ ইকোনমিকস থেকে উন্নয়ন প্রশাসনে ডিগ্রি লাভ করেন।

এদিকে, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বৃহস্পতিবার সকালে আরেক ফেসবুক পোস্টে লিখেন, প্রয়াত উপদেষ্টা এইচটি ইমামের মরদেহ হেলিকপ্টারযোগে উল্লাপাড়া নেয়া হয়েছে। বেলা ১১টায় উল্লাপাড়া আকবর আলী সরকারি কলেজ মাঠে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে মরদেহ পুনরায় হেলিকপ্টারযোগে ঢাকা নিয়ে আসা হবে।

সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মরদেহ দুপুর দেড়টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে।

এইচটি ইমামের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা বাদ আছর গুলশান আজাদ মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ঢাকা জেলা প্রশাসন বনানী কবরস্থান প্রাঙ্গণে গার্ড অব অনার প্রদান করবেন।