ঢাবির বহিষ্কৃত ৬৩ জনের তালিকা প্রকাশ

0
68

কয়েকদিন জল্পনা চলার পর অবশেষে ভর্তি জালিয়াতিতে জড়িত বহিষ্কৃত ৬৩ শিক্ষার্থীর নাম প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) কর্তৃপক্ষ। প্রকাশিত তালিকায় দেখা গেছে, সবচেয়ে বেশি জালিয়াতি করে ভর্তি হয়েছে সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থীরা।

নতুন প্রকাশিত বহিষ্কৃত ভর্তি জালিয়াতদের তালিকায় ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক ১১ নেতাকর্মী রয়েছেন। এছাড়া আগে যে ১৫ জনকে বহিষ্কার করা হয় তারমধ্যে ছিলেন দু’জন। মঙ্গলবার বিকালে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিস থেকে দ্বিতীয় তালিকা প্রকাশ করা হয়।

বহিষ্কৃতদের মধ্যে থাকা ১১ ছাত্রলীগ নেতা হলেন, সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক বেলাল হোসেন, একুশে হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মশিউর রহমান, সাবেক কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক আবু জুনায়েদ সাকিব, পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ।

সলিমুল্লাহ মুসলিম হল শাখা ছাত্রলীগের মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ রানা, স্যার এ এফ রহমান হল শাখার কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক লাভলুর রহমান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখার শিক্ষা ও পাঠচক্রবিষয়ক সম্পাদক এম ফাইজার নাঈম।

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হল শাখার গণশিক্ষাবিষয়ক উপ-সম্পাদক আফসানা নওরীন, রোকেয়া হল শাখার বিজ্ঞান ও তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ফাতেমা-তুজ-জোহরা, সূর্যসেন হল শাখার উপপ্রচার সম্পাদক শাবিরুল ইসলাম এবং জগন্নাথ হল শাখার সহ-সম্পাদক শাশ্বত কুমার ঘোষ।

এছাড়া আগে যে ১৫জনকে বহিষ্কার করা হয়, তার মধ্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় উপসম্পাদক মহিউদ্দীন রানা এবং একুশে হল শাখা ছাত্রলীগের আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদ আব্দুল্লাহ আল মামুন ছিলেন।

বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন, সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সালমান এফ রহমান হৃদয় (২০১৫-১৬), ইসরাত জাহান ছন্দা (২০১৫-১৬), মোঃ রাকিবুল হাসান (২০১৬-১৭), সৌভিক সরকার ( ২০১৫-১৬), মোঃ মেহেদী হাসান (২০১৫-১৬), মােঃ হাসিবুর রশিদ (২০১৫-১৬) মোঃ মারুফ হাসান খান (২০১৫-১৬)।

শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের মো. আব্দুল ওয়াহিদ (২০১৫-১৬), মোঃ ইছাহাক আলী (২০১৫-১৬), আনিকা বৃষ্টি (২০১৬-১৭), ফিওনা মহিউদ্দিন মৌমি (২০১৬০১৭), মো. মাসুদ রানা (২০১৬-১৭)

আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের সাফায়াতে নুর সাইয়ারা নোশিন (২০১৬-১৭), ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট এন্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজ ইনস্টিটিউটের জি এম রাফসান কবির (২০১৬-১৭), পরিসংখ্যান বিভাগের মোঃ আবু জুনায়েদ সাকিব (২০১৪-১৫), তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক কৌশল পূর্বতন বিভাগ, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান, ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মোস্তাফিজ-উর-রহমান (২০১৩-১৪)।

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শরমিলা আক্তার আশা ( ২০১৬-১৭), মােঃ লাসর রহমান লাভলু (২০১৫-১৬), জাকিয়া সুলতানা (২০১৬-১৭)। অর্থনীতি বিভাগের সামিয়া সুলতানা (২০১৬-১৭), সিনথিয়া আহমেদ (২০১৬-১৭), জান্নাত সুলতানা (২০১৬-১৭)। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের মোঃ আশরাফুল ইসলাম আরিষ (২০১৬-১৭), আমরিন আলম জুটি (২০১৫-১৬)।

টেলিভিশন, ফিল্ম এন্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের মেহেজাবিন অনন্যা (২০১৬-১৭), সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মোছাঃ আফসানা নওরিন ঋতু (২০১৬-১৭), ইতিহাস বিভাগের ফাতেমা আক্তার তামান্না (২০১৭-১৮)।

বাংলা বিভাগেরি এম ফাইজার নাঈম (২০১৫-১৬) জিয়াউল ইসলাম (২০১৬-১৭), ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের তাজুল ইসলাম সম্রাট (২০১৬-১৭), নুরুল্লাহ (২০১৬-১৭), ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের মোঃ মাসুদ রানা (২০১৫-১৬), ফাতেমা-তুজ-জোহরা (২০১৬-১৭) মোঃ সাবিরুল ইসলাম(২০১৫-১৬)।

ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ইফতেখারুল আলম জিসান (২০১৭-১৮), নাফিসা তাসনিম (২০১৬-১৭), বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের শাশ্বত কুমার ঘোষ (২০১২-১৩), তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের তৌহিদুল হাসান আকাশ (২০১৬-১৭), ফিন্যান্স বিভাগের শেখ জাহিদ হোসেন ইমন (২০১৬-১৭), ফার্মেসি বিভাগের মোহাম্মদ সাইদুর রহমান (২০১২-১৩), আব্দুর রহমান (২০১৬-১৭), আইন বিভাগের সুবহা লিয়ানা তালুকদার (২০১৬-১৭), আজলান শাহ (২০১৬-১৭), মনোবিজ্ঞান বিভাগের বেলাল হোসেন (২০১৩-১৪)।

মোরশেদা আক্তার (২০১৬-১৭), তানজিলা সুলতানা (২০১৬-১৭), শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের মাসুদ রানা (২০১৬-১৭), স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটের রায়হান ফারুক (২০১৬-১৭), পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের আবুল কালাম আজাদ (২০১৪-১৫) রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের জেরিন হোসাইন (২০১৬-১৭), আবির হাসান হৃদয় (২০১৬-১৭), আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের নওশিন আফরিন মিথিলা (২০১৭-১৮), আল আলামিন পৃথক (২০১৬-১৭), টেলিভিশন ফিল্ম এন্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের মো. সাদমান শাহ (২০১৬-১৭)।

সংস্কৃত বিভাগের শিহাব হাাসন খান (২০১৬-১৭), ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সাদিয়া সুলতানা (২০১৬-১৭), বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের সাদিয়া মিগমা (২০১৫-১৬) যোগাযোগ বৈকল্য বিভাগের মো. আবু মাসুম (২০১৬-১৭), রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের শাহৎ আল ফেরদৌস ফাহিম (২০১৬-১৭), ফিন্যান্স বিভাগের মো. আশেক মাহমুদ জয় (২০১৬-১৭), মার্কেটিং বিভাগের মাহবুব আলম সিদ্দিকী সম্রাট (২০১৭-১৮), আইন বিভাগের সালমান হাবিব আকাশ (২০১৬-১৭), মনোবিজ্ঞান বিভাগের মশিউর রহমান (২০১৩-১৪)।

এর আগে প্রথম দফায় স্থায়ীভাবে বহিষ্কৃত ১৫ জালিয়াত হলেন, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের নাভিদ আনজুম তনয়, পদার্থ বিজ্ঞানের মহিউদ্দিন রানা, ফলিত রসায়নের আবদুল্লাহ আল মামুন, রাষ্ট্রবিজ্ঞানের নাহিদ ইফতেখার ও রিফাত হোসাইন, মনোবিজ্ঞানের মো. বায়জিদ, বিশ্ব ধর্ম ও সংস্কৃতির আজিজুল হাকিম, সংস্কৃত বিভাগের প্রসেনজিত দাস, স্বাস্থ্য অর্থনীতির ফারদিন আহমেদ সাব্বির, অর্থনীতির তানভীর আহমেদ মল্লিক, ইসলামিক স্টাডিজের রাফসান করিম, বাংলার আখিনুর রহমান অনিক, ইতিহাসের টি এম তানভীর হাসনাইন, শিক্ষা ও গবেষণার মুন্সী সুজাউর রহমান এবং পালির নাজমুল হাসান নাঈম।