কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির আবেদনের বিষয়টি তার পরিবারের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে বলে মন্তব্য করেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির আবেদন সম্পূর্ণ তার পরিবারের ব্যাপার। তারাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

মঙ্গলবার জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত শেষে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। সরকারের স্বার্থেই তাঁকে মুক্তি দেওয়া উচিত। মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে আটক রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, সংবিধান অনুযায়ী তিনি (খালেদা জিয়া) জামিন পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু রাজনৈতিক কারণে সরকার জামিন দিচ্ছে না।

বিএনপি দুই বছর ধরে খালেদা জিয়ার মুক্তির চেষ্টা করে যাচ্ছে উল্লেখ করে দলটির মহাসচিব বলেন, জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী সরকার তাঁকে (খালেদা জিয়া) মুক্তি দিতে বাধ্য হবে। জনগণের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে তারা খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র উদ্ধারে এগিয়ে আসবে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় দণ্ডিত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যান বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরই মধ্যে তার কারাজীবনের দুই বছর কেটে গেছে। কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়ায় গত বছরের ১ এপ্রিল মাসে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়। এখনও তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন।