সারাবিশ্বে করোনাভাইরাসে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ফুসফুসের। এই ভাইরাস প্রথমে মানুষের ফুসফুসে সংক্রমণ ঘটায় এবং শ্বাসতন্ত্রের মাধ্যমেই এটি একজনের দেহ থেকে আরেকজনের দেহে ছড়ায়। এই ভাইরাস বংশ বিস্তার করে দেহের ফুসফুসের মধ্যে। তাই আমাদের ফুসফুস আগে থেকেই শক্তিশালী করা দরকার।

জেনে নিন ফুসফুস সুস্থ রাখতে কী কী খাবেন:

১. আপেল:

গবেষণায় দেখা গেছে, ফুসফুস ভালো রাখতে ভিটামিন সি, ই, বিটা ক্যারোটিন -এই উপাদানগুলো গুরুত্বপূর্ণ। আপেল এমন একটি ফল যার মধ্যে এই সব উপাদান রয়েছে। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফুসফুস ভালো রাখতে সাহায্য করে।

২. আঙ্গুর:

আঙ্গুরে প্রচুর পরিমাণে মিনারেল এবং ভিটামিন রয়েছে যা ফুসফুসকে পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে। আপনি যদি ফুসফুস ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে থাকেন তবে এই খাবারটি প্রতিদিনের ডায়েটে রাখতে পারেন। এটি ফুসফুস পরিষ্কার রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৩. জাম:

সব ধরনের জাম ফুসফুসের জন্য দারুন উপকারী। এতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যেমন-ভিটামিন সি আছে যা ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্থ হওয়া থেকে রক্ষা করে।

৪. পেস্তা বাদাম:

ফুসফুস ভালো রাখতে পেস্তা বাদামের তুলনা নেই। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, পেস্তা বাদাম ফুসফুসের ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে। শুধু তাই নয়, কোলেস্টেরল কমাতেও ভূমিকা রাখে পেস্তা বাদাম।

৫. আদা:

এতে থাকা অ্যান্টি ইনফ্লামাটরি উপাদান শরীর থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করে । আদা ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়াতেও ভূমিকা রাখে।

৬. টমেটো:

শরীরের রোগ প্রতিরোধক্ষমতাকে শক্তিশালী করতে সহায়তা করে টমেটো। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ টমেটো কোষ ভালো রাখতে সহায়তা করে। তাছাড়া এতে রয়েছে ক্যানসার প্রতিরোধক উপাদান। এর মধ্যকার লাইকোপেন শ্বাসযন্ত্রে সুরক্ষা স্তর তৈরি করে। ফলে বাতাসে থাকা দূষণ ও ধূলিকণার ক্ষতিকর প্রভাব থেকে তা রেহাই দেয়।

৭. রসুন:

এটিও শরীর থেকে টক্সিন বের করে ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়ায়।

এছাড়া ভিটামিন সি যুক্ত যেকোন ধরনের ফল, গাজর এগুলো ফুসফুসের জন্য ভালো। সেই সঙ্গে ফুসফুস ভালো রাখতে দিনে অন্তত ৬ থেকে ৮ গ্লাস পানি পান করা উচিত।