চ্যাম্পিয়ন্স লিগ
Photo credit: UEFA

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ ফুটবল টুর্নামেন্টগুলির মধ্যে একটি। ২০২৩-২৪ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের (UEFA Champions league) নতুন মৌসুম গ্রুপ পর্বের ড্র হয়ে গেল। একই গ্রুপে বায়ার্ন মিউনিখ, বার্সেলোনা ও ইন্টার মিলান। গ্রুপ জি’তে লিওনেল মেসির পিএসজি ও জুভেন্টাস। আগামী ৬ সেপ্টেম্বর শুরু হবে গ্রুপ পর্বের লড়াই।

আরও পড়ুন:

Champions League Scheduleউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্সলিগের সময়সূচি ২০২৩-২৪, BD time, Date

তারিখ ম্যাচ সময় স্টেডিয়াম
বুধবার, এপ্রিল ১০, ২০২৪ আর্সেনাল ২-২ বায়ার্ন মিউনিখ রাত ১টা এমিরেটস স্টেডিয়াম, লন্ডন, ইংল্যান্ড
বুধবার, এপ্রিল ১০, ২০২৪ রিয়াল মাদ্রিদ ৩-৩ ম্যানচেস্টার সিটি রাত ১টা সান্তিয়াগো বের্নাবেউ
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১১, ২০২৪ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ বনাম বরুসিয়া ডর্টমুন্ড রাত ১টা সিভিটাস মেট্রোপলিটানো, মাদ্রিদ, স্পেন
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১১, ২০২৪ প্যারিস সাঁ জেরমাঁ বনাম বার্সেলোনা রাত ১টা পার্ক দেস প্রিন্সেস, প্যারিস, ফ্রান্স

 

  • রাউন্ড অফ ১৬ ফেব্রুয়ারি ১৩/১৪, ২০/২১ (প্রথম লিগ); মার্চ ৫/৬,  ১২/১৩ (সেকেন্ড লীগ)
  • কোয়ার্টার ফাইনাল ৯/১০ এপ্রিল (প্রথম লেগ); ১৬/১৭ (সেকেন্ড লীগ)
  • সেমিফাইনাল ৩০ এপ্রিল/মে (প্রথম লেগ); ৭/৮ মে (সেকেন্ড লীগ)
  • ফাইনাল ১ জুন

চ্যাম্পিয়নস লিগের ২০২৩/২৪ আট গ্রুপ কে কোন গ্রুপে, কোন দল:

গ্রুপ ‘এ’: বায়ার্ন মিউনিখ, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, কোপেনহেগেন, গালাতাসারাই

গ্রুপ ‘বি’: আর্সেনাল, সেভিয়া, পিএসভি আইন্দহোভেন, লাঁস

গ্রুপ ‘সি’: রিয়াল মাদ্রিদ, নাপোলি, ব্রাগা, ইউনিয়ন বার্লিন

গ্রুপ ‘ডি’: ইন্টার মিলান, বেনফিকা, সালজবুর্গ, রিয়াল সোসিয়েদাদ

গ্রুপ ‘ই’: আতলেতিকো মাদ্রিদ, ফেইনুর্দ, লাৎসিও, সেল্টিক

গ্রুপ ‘এফ’: পিএসজি, বরুসিয়া ডর্টমুন্ড, এসি মিলান, নিউক্যাসল

গ্রুপ ‘জি’: ম্যানচেস্টার সিটি, লাইপজিগ, রেড স্টার বেলগ্রেড, ইয়াং বয়েজ

গ্রুপ ‘এইচ’: বার্সেলোনা, পোর্তো, শাখতার দোনেৎস্ক, রয়্যাল অ্যান্টওয়ার্প

চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল, সময়সূচি বাংলাদেশ – ভারতীয় সময় (Indian Time): Champions league  Final match Schedule Bangladesh, Next Match Date, Time

তারিখ  সময়
বাংলাদেশ – ভারতীয়
চ্যাম্পিয়নস লিগ আজকের ম্যাচ 
জুন ১১ রাত ১টা – ১২:৩০ মিনিট ম্যানচেস্টার সিটি ১-০ ইন্টার মিলান

Champions league  Final match Schedule time

২০২২-২৩ UEFA চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল খেলা হবে শনিবার, ১০ জুন, ২০২৩, তুরস্কের ইস্তাম্বুলের আতাতুর্ক অলিম্পিক স্টেডিয়ামে। ম্যাচটি শুরু হবে 9:00 PM CET -Central European Time, 8:00 PM BST, 3:00 PM ET – USA/Canada)।

বাংলাদেশ সময় ১১ জুন রাত ১টা, ভারতের সময় ১২:৩০ মিনিট, পাকিস্তান সময় রাত ১২ টা.

বাংলাদেশে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোন চ্যানেলে দেখা যাবে

বাংলাদেশের ফুটবল ভক্তরা Sony LIV চ্যানেলে UEFA চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইল ও ফাইনাল ম্যাচ দেখতে পাবেন।

২০২৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের জন্য যোগ্যতা অর্জনের মানদণ্ড কী?

২০২৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের জন্য যোগ্যতা অর্জনের মানদণ্ড নিম্নরূপ:

  • দলগুলোকে অবশ্যই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে হবে তাদের গ্রুপের শীর্ষ দুই স্থানে থেকে।
    দলগুলোকে অবশ্যই তাদের নিজ নিজ কোয়ার্টার ফাইনালে জিততে হবে।
  • সেমিফাইনালের জন্য কোনো সিডিং নেই, তাই যেকোনো দুটি দল একে অপরের বিরুদ্ধে ড্র করতে পারে।

সেমিফাইনাল খেলা হবে দুই লেগ, প্রতিটি দল ঘরের মাঠে এক লেগ খেলবে। যে দল দুই লেগ মিলিয়ে বেশি গোল করবে তারা ফাইনালে উঠবে।

দ্বিতীয় লেগের স্বাভাবিক সময়ের শেষে সমষ্টিগত স্কোর সমান হলে অতিরিক্ত সময় খেলা হবে। অতিরিক্ত সময়ে উভয় দল একই পরিমাণ গোল করলে, টাই পেনাল্টি শুট-আউটের মাধ্যমে নির্ধারিত হবে।

কিভাবে ৩২টি দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপার জন্য উয়েফার ক্লাব প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়?

উয়েফা (UEFA) চ্যাম্পিয়ন্স লিগ হল UEFA-এর অভিজাত ক্লাব প্রতিযোগিতা যেখানে মহাদেশের শীর্ষ ক্লাবগুলি ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন শিপের জন্য লড়াই করে।

টুর্নামেন্ট, যাকে তখন ইউরোপিয়ান কাপ বলা হয়, ১৯৫৫/৫৬ সালে 16 টি দল দল নিয়ে শুরু হয়েছিল। এটি ১৯৯২/৯৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পরিবর্তিত হয় এবং ধীরে ধীরে ক্লাবের সংখ্যা বাড়তে থাকে।

গ্রীষ্মে বাছাইপর্ব শুরু হয় তিনটি রাউন্ডের মাধ্যমে এবং তারপর একটি প্লে-অফ অনুষ্ঠিত হয়

প্রতি বছরে গ্রীষ্মে বাছাইপর্ব শুরু হয় তিনটি রাউন্ডের মাধ্যমে এবং তারপর একটি প্লে-অফ অনুষ্ঠিত হয়. এরপর সেপ্টেম্বরে ৩২টি দল নিয়ে গ্রুপ পর্বের ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে।

গ্রুপ পর্বে চারটি দলের সমন্বয়ে আটটি গ্রুপ করা হয়, প্রতিটি ক্লাব সেই গ্রুপের হোম এবং অ্যাওয়ের এক অন্যের বিপক্ষে খেলে। প্রতিটি গ্রুপের শীর্ষ দুটি দল মিলে রাউন্ড অফ ১৬ তৈরি হয়।

শেষ ষোলোর দলগুলো হোম ও অ্যাওয়ের ভিত্তিতে লেগ ১ ও লেগ ২ হিসেবে একে অন্যের বিপক্ষে খেলে। এরপর এখন থেকে ৮ টি দল মিলে কোয়ার্টার ফাইনাল লেগ ১ ও লেগ ২ হিসেবে একে অন্যের বিপক্ষে খেলে ৪টি দল সেমিফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।

এরপর সেখান থেকে সেমিফাইনাল ৪টি দল আগের নিয়ম অনুযায়ী হোম ও অ্যাওয়ের ভিত্তিতে লেগ ১ ও লেগ ২ হিসেবে একে অন্যের বিপক্ষে খেলে ২টি দল ফাইনালে শিরোপার জন্য লড়াই করে।

কে কতবার পেয়েছে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা:

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১৪বার জিতেছে স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। এরপরেই ৭বার নিয়ে দ্বিতীয় স্স্থানে রয়েছে এসি মিলান।

  • ম্যানচেস্টার সিটি – ২০২২-২৩
  • রিয়াল মাদ্রিদঃ ১৪  – (১৯৫৫-৫৬), (১৯৫৬-৫৭), (১৯৫৭-৫৮), (১৯৫৮-৫৯), (১৯৫৯-৬০), (১৯৬৫-৬৬), (১৯৯৭-৯৮), (১৯৯৯-০০), (২০০১-০২), (২০১৩-১৪), (২০১৫-১৬), (২০১৬-১৭), (২০১৭-১৮), (২০২১-২২)
  • এসি মিলানঃ ০৭ – (১৯৬২-৬৩), (১৯৬৮-৬৯), (১৯৮৮-৮৯), (১৯৮৯-৯০), (১৯৯৩-৯৪), (২০০২-০৩), (২০০৬-০৭)
  • বায়ার্ন মিউনিকঃ ০৬ – (১৯৭৩-৭৪), (১৯৭৪-৭৫), (১৯৭৫-৭৬), (২০০১-০১), (২০১২-১৩), (২০১৯-২০২০)
  • লিভারপুলঃ ০৬  – (১৯৭৬-৭৭), (১৯৭৭-৭৮), (১৯৮০-৮১), (১৯৮৩-৮৪), (২০০৪-০৫), (২০১৮-১৯)
  • বার্সলোনাঃ ০৫  – (১৯৯১-৯২), (২০০৫-০৬),(২০০৮-০৯), (২০১০-১১),(২০১৪-১৫)
  • এএফসি আয়াক্সঃ ০৪ – (১৯৭০=৭১), (১৯৭১-৭২), (১৯৭২-৭৩), (১৯৯৪-৯৫)
  • ইন্টার মিলানঃ ০৩ – (১৯৬৩-৬৪), (১৯৬৪-৬৫),(২০০৯-১০)

২ বার চ্যাম্পিয়ন

  • বেনফিকাঃ ২  (১৯৬০-৬১), (১৯৬১-৬২) | চেলসিঃ ২ বারঃ (২০১১-১২), (২০২০-২১),
  • জুভেন্টাসঃ ২  (১৯৮৪-৮৫), (১৯৯৫-৯৬) | নটিংহ্যাম ফরেস্ট ২ বারঃ ১৯৭৮-৭৯), (১৯৭৯-৮০),
  • পোর্তোঃ ২  (১৯৮৬-৮৭), (২০০৩-০৪)

১ বার চ্যাম্পিয়ন লিগ জয়ী দলের তালিকাঃ

অ্যাস্টন ভিলাঃ (১৯৮১-৮২), বরুসিয়া ডর্টমুন্ডঃ (১৯৯৬-৯৭), সেলটিকঃ (১৯৬৬-৬৭), ফেয়েনুর্ডঃ (১৯৬৯-৭০)
হ্যামবার্গঃ (১৯৮২-৮৩), ওলাঁপিক মার্সেইঃ (১৯৯২-৯৩), পিএসভি এইন্থোভেনঃ (১৯৮৭-৮৮), রেড স্টার বেলগ্রেডঃ (১৯৯০-৯১), স্ট্রয়া ব্যুরচেস্টঃ (১৯৮৫-৮৬)

মেসি কতবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেঃ

মেসি তিনবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন – ২০০৯, ২০১১ এবং 2২০১৫ (সবই বার্সেলোনার হয়ে)। তবে, ২০০৬ সালে যখন  বার্সেলোনা ট্রফি জিতেছিল তখন তিনি স্প্যানিশ ক্লাবের নিয়মিত ছিলেন, কিন্তু ফাইনালের জন্য তাদের দলের অংশ ছিলেন না।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো কতবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেঃ

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ৫বার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে। এর মধ্যে ২০০৮ সালে প্রথম ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড দলের হয়ে প্রথম শিরোপা জয় করেন। এরপর র‍্যাল মাদ্রিদের হয়ে ২০১৪, ২০১৬, ১০১৭, ২০১৮

সবচেয়ে বেশি চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে জয়ী খেলোয়াড়ঃ

৫ করিম বেনজেমা (রিয়াল মাদ্রিদ), ৫ দানি কারভাজাল (রিয়াল মাদ্রিদ), ৫ লুকা মডরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ)

৫ ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, রিয়াল মাদ্রিদ)

৪ গ্যারেথ বেল (রিয়াল মাদ্রিদ), ৪ কাসেমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), ৪ আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা (বার্সেলোনা), ৪ টনি ক্রুস (রিয়াল মাদ্রিদ)

৪ ইসকো (রিয়াল মাদ্রিদ), ৪ মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), ৪ সার্জিও রামোস (রিয়াল মাদ্রিদ), ৪ ক্লারেন্স সিডর্ফ (আজাক্স, রিয়াল মাদ্রিদ, মিলান)

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালঃ

ইস্তাম্বুলের কামাল আতার্তুক স্টেডিয়ামে, ১০ই জুন, ২০২৩

All the 2022/23 UEFA Champions League fixtures – ২০২২/২৩ UEFA চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সকল ম্যাচের সময়সূচি

চ্যাম্পিয়নস লিগ ২০২২-২০২৩
চ্যাম্পিয়নস লিগ কে কতবার জিতেছে
চ্যাম্পিয়নস লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা
উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ ফাইনাল
চ্যাম্পিয়নস লিগ প্রাইজমানি

7 COMMENTS

  1. […] চেষ্টায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে সিটি। ২০২১ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে… গিয়ে শিরোপা থেকে বঞ্চিত হয় […]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here