dengue-holy-shishu

এখন এ দেশে সবচেয়ে আলোচিত আতঙ্কের নাম ডেঙ্গু। এটা ভাইরাসজনিত রোগ, যা এডিস মশার মাধ্যমে ডেঙ্গু আক্রান্ত মানুষের শরীর থেকে অন্য মানুষের শরীরে প্রবেশ করে। প্রবেশ করার ৪ থেকে ১০ দিন পর রোগের উপসর্গ দেখা যায়।

বাচ্চাদের মধ্যে ডেঙ্গুর লক্ষণ সচরাচর ধরা পড়ে না। বাচ্চা যত ছোট হয় তার লক্ষণ ততই সাংঘাতিক হয় এবং সংক্রমণ হওয়ার চার দিন পর সেই লক্ষণ সনাক্ত করা যায়।

শিশুদের ডেঙ্গু রোগের কয়েকটি লক্ষণ-

১. আপনার বাচ্চার যদি উচ্চ তাপমান সহ জ্বর থাকে, নাক বইতে থাকে ও কাশি থাকে, তাহলে তা ডেঙ্গুর লক্ষণ হতে পারে। যদিও এগুলি সাধারণ ফ্লু-এর উপসর্গ, তবুও যদি জ্বর ২৪ ঘণ্টা থেকে বেশী সময় ধরে থাকে তাহলে শিশু চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন।

২. মাথা বা শরীরের ব্যথায় বাচ্চা অযথা কান্নাকাটি বা বিরক্ত করতে থাকে।

৩. ডেঙ্গু হওয়ার ক্ষেত্রে বাচ্চাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশী যে সমস্যা দেখা যায় তা হল ত্বকে র‍্যাশ হওয়া। এগুলি দেখতে মিজেলের মত চাকা চাকা (প্যাচ) হয়ে থাকে।

৪. শরীরে দানা দানা র্যাশের মতো দেখা দিতে পারে। এ সময় শিশু একেবারে নিস্তেজ হয়ে যায়।

৫. অনেক সময় শরীরের বিভিন্ন জয়গায় রক্তপাতের চিহ্ন দেখা যায়, যেমন মাড়ি বা নাক থেকে।

৬. বয়স্ক মানুষের তুলনায়, স্বাভাবিকভাবেই বাচ্চারা বুঝতে অক্ষম হয় যে তাদের শরীরে বাস্তবিক কি সমস্যা হচ্ছে। এর ফলে বাচ্চাদের মধ্যে বিরক্তিভাব ও ব্যবহারিক পরিবর্তন লক্ষ করা যায়। ওরা খিটখিটে স্বভাবের হয়ে যায় ও প্রায়শই দেখা গেছে ওদের খিদে কমে যায়।

৭. পালস খুব কম, পানি শূন্যতা ও অনেক শিশুদের শ্বাসকষ্ট হতে পারে।