হাঁটলে ওজন কমে

হাঁটলে ওজন কমে, এটি একটি প্রচলিত ধারণা। বাজার-ঘাট, অফিস-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কিংবা রাস্তায় হেঁটে গেলেই হাঁটার উপকারিতা আসবে, নাকি ঘণ্টার পর ঘণ্টা শরীরকে কষ্ট দিয়ে হাঁটলে মিলবে সুফল? কত ক্ষণ ধরে হাঁটবেন বা কখন হাঁটবেন, হাঁটার এ সব নিয়মনীতি না জেনেই হাঁটার জন্য পখে নামলে কিন্তু অসুস্থ হতে পারেন।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, শরীরের বাড়তি ওজন ঝরাতে প্রতিদিন হাঁটার প্রয়োজন নেই। সপ্তাহে মাত্র তিন দিন হাঁটলেই চলবে। তবে এই তিন দিন অন্তত ৩০ মিনিট স্বাভাবিকের তুলনায় একটু বেশি গতিতে হাঁটতে হবে।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, টানা ৩০ মিনিট ঘণ্টায় ২.৫ কিলোমিটার থেকে ৩.৩ কিলোমিটার গতিতে হাঁটলেই হৃৎপিণ্ড তার স্থায়ী গতিশীল অবস্থায় (Low Intensity Steady State) পৌঁছে যায়। দীর্ঘ সময় ধরে হৃৎপিণ্ডের এই স্থায়ী গতিশীল অবস্থা আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

সুতরাং, সপ্তাহে তিন দিন অন্তত ৩০ মিনিট ঘণ্টায় ২.৫ কিলোমিটার থেকে ৩.৩ কিলোমিটার গতিতে হাঁটার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদদের মতে, একটানা হাঁটলেই সুফল আসে। টুকটাক খুচরো হাঁটায় শরীরের কলকব্জা ভালো থাকে ঠিকই, কিন্তু ওতে ওজনে হেরফের হয় না। বরং সপ্তাহে ৩০০ মিনিট হাঁটতেই হবে একটানা। গড় হিসাবে যা দাঁড়ায় প্রায় ৪৩ মিনিট করে। একান্ত না পারলে অন্তত আধ ঘণ্টা বা ৩০ মিনিট একটানা হাঁটুন রোজ। এতে উপকার পাবেন।

তবে হ্যাঁ, শুধু হাঁটলেই হবে না। প্রয়োজন স্বাস্থ্যকর খাবার ও নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন।

এরই সঙ্গে খাবার থেকে অতিরিক্ত চিনি বা নুন বাদ দিতে হবে। চিকিত্সকের পরামর্শ অনুযায়ী খাদ্যতালিকায় এবং খাবার খাওয়ার সময়ে পরিবর্তন আনুন। উল্লেখিত সব নিয়ম ঠিক মতো মেনে চলতে পারলে দ্রুত কমবে শরীরের বাড়তি ওজন।

হাঁটা কেন ওজন কমাতে সাহায্য করে:

  • ক্যালোরি পোড়ায়: হাঁটা একটি শারীরিক কার্যকলাপ যা ক্যালোরি পোড়াতে সাহায্য করে। আপনি যত বেশি হাঁটবেন, তত বেশি ক্যালোরি পোড়াবেন।
  • চর্বি কমায়: নিয়মিত হাঁটা শরীরের অতিরিক্ত চর্বি কমাতে সাহায্য করে, বিশেষ করে পেটের চর্বি।
  • পেশী গঠনে সাহায্য করে: হাঁটা পেশী গঠনে সাহায্য করে, যা বিপাক বাড়ায় এবং ওজন কমাতে সহায়তা করে।
  • মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করে: হাঁটা মানসিক চাপ কমাতে এবং মूড ভালো করতে সাহায্য করে, যা ওজন কমানোর প্রচেষ্টাকে সমর্থন করে।

ওজন কমানোর জন্য হাঁটার টিপস:

  • নিয়মিত হাঁটুন: প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট হাঁটার চেষ্টা করুন।
  • বেগ বাড়ান: সময়ের সাথে সাথে আপনার হাঁটার গতি বাড়ানোর চেষ্টা করুন।
  • পাহাড়ে বা সিঁড়িতে হাঁটুন: পাহাড়ে বা সিঁড়িতে হাঁটলে বেশি ক্যালোরি পোড়ে।
  • বন্ধু বা পরিবারের সাথে হাঁটুন: এটি হাঁটাকে আরও উপভোগ্য করে তুলবে এবং আপনাকে অনুপ্রাণিত রাখবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here