সাম্প্রদায়িক আইন সিএএ ও এনআরসিকে ঘিরে দিল্লির সহিংসতায় এ পর্যন্ত ৪২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন তিন শতাধিক। এই সহিংসতা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু ছবি ভাইরাল হয়েছে ।

এর মধ্যে দাঙ্গায় প্রাণ হারানো অটোরিকশাচালক মুদাসসির খানের লাশের সামনে তার ছেলে ও স্বজনদের কান্নার ছবি এখন ভাইরাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ।

সংঘাত-সহিংসতায় থমথমে অবস্থার মধ্যেই ২৫ ফেব্রুয়ারি নিকটস্থ মুদি দোকানে সদাই করতে যাচ্ছিলেন কর্দমপুরীর বাসিন্দা অটোচালক মুদাসসির খান। কিন্তু উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা তার মাথায় গুলি করে। তখন তাকে নিকটস্থ জিটিবি হাসপাতালে নেয়া হলেও চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন মুদাসসির খানকে।

বৃহস্পতিবার তার মরদেহ স্বজনদের বুঝিয়ে দেয়া হয়। এরপর মুদাসসিরের মরদেহ কর্দমপুরীতে তার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। তখনই কান্নায় ভেঙে পড়েন মুদাসসিরের স্ত্রী-সন্তানসহ স্বজনরা। পরে তাকে নিকটস্থ গোরস্থানে দাফন করা হয়।

সহিংসতার বিষয়ে বলিউডের প্রথম সারির কোন তারকা কথা না বললেও টলিউডের অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

টলিউডের জনপ্রিয় নায়ক ও তৃণমূল সাংসদ দেব তার টুইটারে লিখেছেন, ‘আমি দেখতে পাচ্ছি, দিল্লি জ্বলছে না। আমি দেখছি মানবতা পঙ্গু হয়ে যাচ্ছে। এটা স্রষ্টার পরিকল্পনা নয়। এটা বন্ধ হওয়া দরকার। না হলে জাতি হিসেবে আমরা সবাই একসঙ্গে ব্যর্থ হব।’

টলিউডের সুপারস্টার প্রসেনজিৎও টুইট করেছেন, ‘দিল্লির অশান্তির ঘটনায় দুঃখিত ও বিধ্বস্ত অনুভব করছি। সহিংসতা জয়ী হতে পারে না। আসুন ভারতীয় হিসেবে একসঙ্গে এগিয়ে আসি আমরা।’

অন্যদিকে পরিচালক সৃজিত মুখার্জি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচিত কবিতার অংশ উদ্ধৃত করে লিখেছেন, ‘অহরহ তব আহ্বান প্রচারিত, শুনি তব উদার বাণী। হিন্দু বৌদ্ধ শিখ জৈন পারসিক মুসলমান খৃস্টানী। পূরব পশ্চিম আসে তব সিংহাসন-পাশে প্রেমহার হয় গাঁথা। জনগণ-ঐক্য-বিধায়ক জয় হে ভারতভাগ্যবিধাতা! জয় হে, জয় হে, জয় হে, জয় জয় জয় জয় হে।’