Photo Credit: Twitter/ Al Jazeera English

চলতি বছরের সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘গনি’র তাণ্ডবে অনেকটাই বিধ্বস্ত ফিলিপিন্স। ঘূর্ণিঝড় গনি লুজোন দ্বীপ অতিক্রম করেছে। এছাড়া ঝড়ের কবলে পড়ে আলবে প্রদেশে এখন পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। দেশটির স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ঘূর্ণিঝড় নিয়ে সতর্কতাও জারি করেছে।

আলবে প্রদেশে পাঁচ বছরের এক শিশুসহ কমপক্ষে চারজন নিহত হয়েছেন বলে এক স্থানীয় রেডিও স্টেশনকে জানিয়েছেন গভর্নর আলফ্রান্সিস বিচারা। নিহতদের মধ্যে দু’জন পানিতে ডুবে মারা যান। অন্যজন আগ্নেয়গিরির কাদায় ভেসে গিয়ে প্রাণ হারান। আর চতুর্থ জন একটি গাছের নিচে পড়ে মারা যান।

বিকোল অঞ্চলের প্রদেশগুলোর ওপর দিয়ে ‘ধ্বংসাত্মক প্রবল ঝড়ো বাতাস ও প্রবল থেকে তীব্র বৃষ্টিপাত’ হতে পারে। ম্যানিলার দক্ষিণে কেজন, লাগুনা ও বাতাঙ্গাসের কিছু অংশেও এর প্রভাব পড়তে পারার পূর্বাভাস রয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানায়, ঘূর্ণিঝড়টির ফলে আগামী ১২ ঘণ্টায় দেশটির কয়েকটি প্রদেশে ভারি বৃষ্টি, আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

রোববার (১ নভেম্বর) স্থানীয় সময় সকালে ঘণ্টায় ২২৫ কিলোমিটার গতিতে উপকূলীয় এলাকা ‘বিকোল’-এ আঘাত হানে ঝড়টি। জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া দফতর।