ভারত ভ্রমণে সতর্কতা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও কানাডার

0
106
photo credit: india/facebook

সম্প্রতি ভারতের রাজ্যসভায় পাস হওয়া সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন-২০১৯’এর জের ধরে চলমান আন্দোলনের মধ্যে দেশটির উত্তর-পূর্ব অঞ্চলে “অতি জরুরি কারণ” ছাড়া ভ্রমণ করতে সতর্ক করছে কানাডা। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের পক্ষ থেকে দেশটির নাগরিকদের প্রতি এ অঞ্চলে ভ্রমণে সতর্কতা জারি করা হয়।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) ভারতের কানাডা দূতাবাস থেকে দেশটির নাগরিকদের প্রতি এ সতর্কতা দেওয়া হয়। ওই সতর্কতায় ভারতের অরুণাচল প্রদেশ, আসাম, মণিপুর, মেঘালয়, মিজোরাম ও নাগাল্যান্ড রাজ্যগুলো রয়েছে। এদিকে মার্কিন নাগরিকদের শুধু আসাম ভ্রমণে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

ভারতের কানাডা দূতাবাস জানায়, আন্দোলন চলা রাজ্যগুলোতে ইন্টারনেট ও মোবাইল সংযোগ সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অনেক এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থাও আন্দোলনের কারণে বন্ধ রয়েছে।

বার্তাসংস্থা আইএনএসের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ওই অঞ্চলে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধীতা করে আন্দোলন চলছে। বুধবার থেকে এই আইনের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে রাজ্যগুলোর হাজার হাজার বিক্ষোভকারী। এ সময় ভাঙচুরসহ পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতির ঘটনায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন-২০১৯ ভারতের রাজ্যসভায় পাস হয়। এই আইনে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে নির্যাতনের শিকার হতে ভারতে আশ্রয় নেওয়া সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়। তবে সেখানে মুসলিমদের বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। এই আইন ভারতের সাম্প্রদায়িক ভাবমূর্তির বিপক্ষে যায় বলে সমালোচনা করেছেন অনেকেই। আইনের সংশোধনীতে “ধর্মীয় বৈষম্য” করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন অনেকে।