ফিরে দেখা ২০২০: বছরজুড়ে যত বিতর্ক

0
23

তারকাদের ভাগ্যে বিতর্ক নতুন নয়। তারা ভালো কাজে যেমন প্রশংসিত হন, তেমনি পান থেকে চুন খসলেই হন সমালোচিত। করোনার এই সংকটেও দেশের ছোট পর্দার অনেক অভিনয়শিল্পী বিভিন্ন কারণে বছরজুড়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন। তেমন কিছু ঘটনা নিয়েই এই প্রতিবেদন।

লকডাউনে শুটিং করে বিতর্কে জড়ান জাহিদ-সেলিম
করোনার প্রকোপ রোধে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়ার জন্য সরকার প্রথম থেকেই নির্দেশনা দিয়েছিল। এমনকি ঢাকা ত্যাগ এবং প্রবেশেও ছিল নিষেধাজ্ঞা। পাশাপাশি করোনাকালে শুটিং বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় টেলিভিশনের সব সংগঠন। সরকার ও সংগঠনের নির্দেশ অগ্রাহ্য করে গত ১০ মে শুটিংয়ে অংশ নেন জনপ্রিয় অভিনেতা জাহিদ হাসান। এতে সমালোচনার মুখে পড়েন জাহিদ হাসান এবং নির্মাতা মিজান। একজন জনপ্রিয় অভিনেতার এমন অসচেতনতামূলক আচরণে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখায় সহকর্মী ও ভক্তকুল।

একই কারণে অভিযোগ উঠেছিল ছোটপর্দার আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা শহীদুজ্জামান সেলিমের বিরুদ্ধেও। গত মে মাসের মাঝামাঝি একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের বিজ্ঞাপনে অংশ নিয়ে তিনি সমালোচিত হন। অভিনয় শিল্পী সংগঠনের সভাপতি হয়ে তিনি কীভাবে আইন অমান্য করলেন এই ছিল প্রশ্ন!

মিথিলার ছবি নিয়ে সমালোচনার ঝড়
সংখ্যবার সমালোচনার মুখে পড়েছেন মডেল, অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশীদ মিথিলা। চল
প্রেম-বিয়েকে কেন্দ্র করে অতি বছর এ অভিনেত্রীর একটি স্থিরচিত্রকে কেন্দ্র করে নেটিজেনদের সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। গত ২৪ আগস্ট মিথিলা ফেসবুক পেজে একটি ছবি পোস্ট করেন। পোস্ট করার ৩ ঘণ্টার মধ্যে লাইক বাটনে রিঅ্যাক্ট পড়ে ৩২ হাজার। মন্তব্য পড়েছিল ৩ হাজার। যদিও মন্তব্যের ভিড়ে ইতিবাচক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি বললেই চলে। নেটিজেনদের কু-রুচিপূর্ণ মন্তব্যে ভরে যায় কমেন্ট বক্স। অধিকাংশ মন্তব্য তাকে আক্রমণ করে করা হয়। একই ঘটনা ঘটে গত ১৮ সেপ্টেম্বর মিথিলা ফেসবুকে আরো কিছু ছবি পোস্ট করলে। বরাবরের মতো এসব ছবিকে কেন্দ্র করেও নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়েন মিথিলা।

কুকুরের সঙ্গে তুলনা করে বিতর্ক
গত সেপ্টেম্বরে রাজধানী থেকে প্রায় ৩০ হাজার বেওয়ারিশ কুকুর অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। পশুপ্রেমীরা এই সিদ্ধান্তের বিপক্ষে অবস্থান নেয়। শোবিজ অঙ্গনের অনেক তারকা বিষয়টিকে ‘অমানবিক’ বলে সোচ্চার হন। অভিনেত্রী শামীমা তুষ্টিও শুরু থেকেই ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে বিষয়টির প্রতিবাদ করে আসছিলেন। এ প্রসঙ্গে তার দেওয়া একটি পোস্ট ভীষণ সমালোচিত হয়। গত ২২ সেপ্টেম্বর তুষ্টি ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেন। সেখানে দেখা যায়— শিশুরা পথের কুকুরদের খাওয়াচ্ছে। অনেক শিশু কুকুর কোলে তুলে আদর করছে। এ অভিনেত্রী ছবির ক্যাপশনে লেখেন: ‘ফেরেস্তাদের সঙ্গে ফেরেস্তারাই থাকে।’ এই ক্যাপশনের কারণে বিতর্কের মুখে পড়েন তুষ্টি। নেটিজেনদের অভিযোগ—‘ফেরেশতার সঙ্গে কেন কুকুরকে তুলনা করা হলো?’ সমালোচনার মুখে তুষ্টি বিষয়টির ব্যাখ্যা দেন এবং বলেন, ‘ক্যাপশনে যা লিখেছি, সেটা প্রতীকী।’

সুইম স্যুট পরে সমালোচিত এভ্রিল
চলতি বছর এভ্রিল সুইম স্যুট পরে তোলা একটি স্থিরচিত্র ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে নতুন করে আলোচনার জন্ম দেন। ছবিতে দেখা যায়— তার পরনে হলুদ, সাদা-লালসহ ৬ রঙের স্টেপের সুইম স্যুট। রিসোর্টের কাঠের বেঞ্চে মোহনীয় ভঙ্গিতে বসে আছেন। পায়ের কাছে ফুটে আছে নয়নতারা ফুল। ছবিটি পোস্ট করার পর ডিসলাইক কমেন্টস-এ ভেসে যান তিনি। শুরু হয় নেতিবাচক সমালোচনা।

গান গেয়ে বিতর্কে চঞ্চল-শাওন
চলতি বছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সংগীতশিল্পী মেহের আফরোজ শাওনের সঙ্গে একটি লোক গানে কণ্ঠ দেন চঞ্চল। ‘সর্বত মঙ্গল রাধে’ শিরোনামের গানটি নতুন করে কণ্ঠে তোলেন এই জুটি। গত ২০ অক্টোবর গানটি মুক্তি পায় এবং ভাইরাল হয়। এরপরই সরলপুর ব্যান্ড দাবি করে এটি তাদের মৌলিক গান এবং তাদের নামে কপিরাইট করা। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ‘যুবতি রাধে’ গানটি ইউটিউব ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আইপিডিসির ফেসবুক পেজ থেকে সরিয়ে নেয়। এ নিয়ে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়।

বিচে তোলা ছবি নিয়ে সমালোচনার মুখে ভাবনা
গত সেপ্টেম্বরে অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা ইনস্টাগ্রামে বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেন। ভাবনার পরনে কালো রঙের টপস ও শর্টস। বিচে ফুটবল খেলায় মেতেছেন তিনি। ক্যাপশনে লেখা: ‘বিচে সবকিছুই সুন্দর। এমনকি বৃষ্টিও।’ এ পর্যন্ত সবকিছু ঠিকই ছিল। ভাবনার পরিচিতজনরাও তার সঙ্গে একমত পোষণ করে মন্তব্য করছিলেন। কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পোস্টে বাড়তে থাকে লাইক কমেন্টস। বিড়ম্বনার শুরু সেখান থেকেই। কারণ নেটিজেনরা তার পোশাক ও রুচি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। অনেকেই নোংরা ভাষায় মন্তব্য করেন।

অপূর্বর ‘এক্সচেঞ্জ’ নিয়ে বিতর্ক
জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও সাবিলা নূর অভিনীত একক নাটক ‘এক্সচেঞ্জ’। গত ১৩ নভেম্বর মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচার হয় এটি। প্রচারের পরই নাটকটি আলোচনায় উঠে আসে। নাটকটির নির্মাণ ও অভিনয় নিয়ে যতটা না আলোচনা হয়, তারচেয়ে বেশি বিতর্ক হয় নাটকটির গল্প, চিত্রনাট্য নিয়ে। আর এই বিতর্কের সূচনা করেন শামীম রানা শামু নামে এক নির্মাতা। তার অভিযোগ, ‘এক্সচেঞ্জ’ নাটকটি তার নির্মিত একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের নকল। এ নিয়ে বেশ কিছু দিন সমালোচনার ঢেউ বয়ে যায় নেট দুনিয়ায়।