আগামী ১৪ নভেম্বর ইন্দোরে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। ২২ নভেম্বর কলকাতায় শুরু হবে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। ম্যাচটি হতে পারে দিবা-রাত্রির। ভারতে প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছে বাংলাদেশ।

রবিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমরা ভারতের কাছ থেকে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছি। তবে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। টিম ম্যানেজমেন্ট এবং ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনা করে আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবো।’

পুরান টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ ও ভারত এখনও দিবা-রাত্রির কোনো টেস্ট খেলেনি। সৌরভ গাঙ্গুলী বিসিবিআই প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর জানান ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলী দিবা-রাতের টেস্ট খেলতে রাজি হয়েছেন।

দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার আমন্ত্রণ এটাই প্রথম নয় বাংলাদেশের জন্য। গত বছর নিউ জিল্যান্ড ২০১৯ সালের সফরে একটি দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। তাতে সাড়া দেয়নি বিসিবি। সে সময় নিজাম উদ্দিন বলেছিলেন, ঘরোয়া ক্রিকেটে দিবা-রাত্রির প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে প্রস্তুতি নেওয়ার পরই কেবল গোলাপী বলে খেলবে বাংলাদেশ।

বিসিসিআই সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই কলকাতা টেস্টকে আকর্ষণীয় করে তুলতে যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। এরই মধ্যে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীকে ম্যাচটি দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমন্ত্রণ গ্রহণও করেছেন।