SHARE

রাখাইন রাজ্যে চলমান সহিংসতায় সেনাবাহিনী ও সরকারের পক্ষে কথা বলা এবং রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় সেরা সুন্দরীর মুকুট হারালেন সোয়ে ইয়েন সি নামের মিয়ানমারের একজন সুন্দরী।

সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজকরা রোববার ১৯ বছর বয়সী ‘মিস গ্রান্ড মিয়ানমার’ শোয়ে ইয়ান সি’র খেতাব প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়। বিবিসি জানায়, গত সপ্তাহে সি অনলাইনে একটি ভিডিও পোস্ট করেন।

সেখানে তিনি রাখাইনের সহিংস পরিস্থিতির জন্য রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের দায়ী করে বলেন, সুন্দরী প্রতিযোগিতার একজন প্রতিযোগী হিসেবে তার দায়িত্ব শান্তির পক্ষে কথা বলা। ভিডিওতে সি বলেন, “রাখাইন রাজ্যে ঘটে যাওয়া সহিংসতা সম্পর্কে সাধারণ মানুষ আমার মতামত জানতে চায় বলেই আমি নিজের দায়িত্ববোধ থেকে এ ভিডিও পোস্ট করেছি।”

এখন মিস ইউনিভার্স মিয়ানমার অর্গানাইজার থেকে বলা হয়েছে, রোলমডেলের মতো আচরণ না করায় সোয়ে ইয়েন সিকে দেওয়া মুকুট, উত্তরীয়, পুরস্কারের অর্থ ও ট্রফি-সবকিছুই ফেরত দিতে হবে।

রোহিঙ্গা নিয়ে মন্তব্য করে আগামী ৫ থেকে ২৬ অক্টোবর ভিয়েতনামে অনুষ্ঠিত মিস গ্র্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল ২০১৭ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারছেন না সোয়ে। ব্যাংককভিত্তিক মিস গ্র্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাঁদের এই সুন্দরী প্রতিযোগিতার লক্ষ্য হলো শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং যুদ্ধ বন্ধ করা।

আয়োজকরা সরাসরি না বললেও ইয়েন সি তার ভিডিও ক্লিপের সঙ্গে ‍মুকুট খোয়ানোর বিষয়টির যোগসূত্র টেনেছেন। আবার মিয়ানমারের একজন নাগরিক হিসেবে নিজের খ্যাতি কাজে লাগিয়ে দেশের প্রকৃত সত্য তুলে ধরতে পেরে  ধন্য হয়েছেন বলেও নিজের ফেইসবুক পাতায় এক বক্তব্যে উল্লেখ করেছেন সি।