SHARE

দক্ষিণ আফ্রিকায় একদমই সুবিধা করতে পারছে না বাংলাদেশ। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৩৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজয়ের পর চলমান দ্বিতীয় টেস্টে আরো ভয়াবহ অবস্থা। বাংলাদেশের এমন পারফরম্যান্সে চারিদিক সমালোচনামুখর।

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ দিয়েই সম্ভবত অবসান হয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটে মুশফিকুর রহিম-যুগ। সীমিত ওভারের ক্রিকেটের পর এবার টেস্টের অধিনায়কত্ব থেকেও তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত মোটামুটি নিয়ে ফেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিসিবির এক পরিচালক কাল মুঠোফোনে নিশ্চিত করলেন, ‘আমরা মুশফিকের বিকল্প ভাবতে শুরু করেছি। টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে তাঁর কিছু বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয়। অনেক সিদ্ধান্তও ভুল হচ্ছে।’

বিসিবির আগ্রহটা সাকিবের দিকেই বেশি। তবে এই চিন্তার সমান্তরালে তাদের এটাও ভাবতে হচ্ছে যে সাকিব আদৌ টেস্ট খেলবেন কি না বা খেললেও নিয়মিত খেলবেন কি না। বিশ্রাম চেয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি। সাকিবকে নিয়ে বিসিবির দ্বিধাদ্বন্দ্বের এটাই কারণ।

ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে টাইগারদের পরবর্তি টেস্ট সিরিজ। ইতোমধ্যে সেই টেস্ট সিরিজে অধিনায়ক হিসেবে বিকল্প কাউকে ভাবা শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

টেস্টে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি সাফল্য পেয়েছে মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বেই। বাংলাদেশ দলের ১০টি টেস্ট জয়ের ৭টিই তাঁর অধিনায়কত্বে। ব্লুমফন্টেইন টেস্টের আগে মোট ৩৩টি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে সাত জয় ছাড়াও মুশফিকের দল ড্র করেছে ৯ টেস্টে। হার ১৭টিতে। সাম্প্রতিক সময়ে ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়ার মতো দলকে হারিয়ে টেস্টে বাংলাদেশের উত্থানও তাঁর হাত ধরেই।