Mitali-express
Photo Credit: PID

আজ বাংলাদেশ এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রীদ্বয়ের উপস্থিতিতে ঢাকা থেকে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত চলাচলকারী ‘মিতালি এক্সপ্রেস’ ট্রেনের উদ্বোধন করা হয় । বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি জানায়, মৈত্রী এক্সপ্রেস ও বন্ধন এক্সপ্রেস চালু আছে।

দূরত্ব: ঢাকা থেকে নিউ জলপাইগুড়ি দূরত্ব ৫৯৫ কিলোমিটার।

কবে ছাড়বে: বাংলাদেশ থেকে সোমবার এবং বৃহস্পতিবার এবং ভারতের জলপাইগুড়ি থেকে ছাড়বে রবিবার ও বুধবার।

ভারতের সময়:  দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে সপ্তাহে রবি ও বুধবার নিউ জলপাইগুড়ি (এনজিপি) থেকে ছেড়ে হলদিবাড়ি ইন করবে দুপুর ১টা ১০ মিনিটে। এই স্টেশনে ৫ মিনিট বিরতি দিয়ে ১টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে আসবে।

বাংলাদেশ সময়: বেলা ২টায় ট্রেনটি বাংলাদেশের নীলফামারীর চিলাহাটি রেলস্টেশনে প্রবেশ করবে। এখানে ৩০ মিনিট বিরতি দিয়ে দুপুর আড়াইটায় ট্রেনটি চিলাহাটি থেকে ছেড়ে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশনে পৌঁছাবে রাত সাড়ে ১০টায়। পথে আর কোথাও দাঁড়াবে না।

ফিরতি যাত্রায় বাংলাদেশ থেকে সোম ও বৃহস্পতিবার ট্রেনটি ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন থেকে রাত ৯টা ৫০ মিনিটে ছেড়ে যাবে। এর পর নীলফামারীর চিলাহাটি রেলস্টেশনে প্রবেশ করবে ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে।

এখানে চিলাহাটির যাত্রীদের জন্য ৩০ মিনিট যাত্রা বিরতি দিয়ে ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে ভারতের দিকে ছেড়ে যাবে। ভারতীয় সময় ভোর ৬টায় ট্রেনটি হলদিবাড়ি প্রবেশ করবে। ৫ মিনিট বিরতি দিয়ে ট্রেনটি হলদিবাড়ি থেকে ভোর ৬টা ৫ মিনিটে ছেড়ে নিউ জলপাইগুড়ি পৌঁছবে সকাল ৭টা ৫ মিনিটে।

আসন: ট্রেনটি দিনের বেলা ৪৫৬ আসন বিশিষ্ট এবং রাতে ৪০৮আসন বিশিষ্ট অবস্থায় চলাচল করবে।

ভাড়া: মোট যাত্রীবাহী কোচ থাকবে আটটি। চারটি কেবিন কোচ ও চারটি এসি চেয়ার কোচ। এসি চেয়ার ২৭০৫ টাকা, এসি সিট ৩৮০৫ টাকা এবং এসি বার্থ ৪৯০৫ টাকা যার প্রতিটি তে ৫০০ টাকা ট্রাভেল ট্যাক্স নির্ধারিত। চিলাহাটি স্টেশন থেকেও যাত্রী ওঠানামা করতে পারবেন।

ট্রেনটি বাংলাদেশের নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথ দিয়ে চলাচল করবে। এতে নীলফামারীর চিলাহাটি স্টেশনের জন্য দুটো পৃথক কোচ বরাদ্দ থাকবে। সমগ্র উত্তরবঙ্গের মানুষ চিলাহাটি থেকে ট্রেনে উঠে নিউ জলপাইগুড়ি যেতে পারবে এবং নিউ জলপাইগুড়ি থেকে চিলাহাটি এসে নামতে পারবে।