কক্সবাজার থেকে সরাসরি সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে উদ্বোধনের পর যাত্রা শুরু করে বেসরকারি মালিকাধীন ‘কর্ণফুলী এক্সপ্রেস’। তবে সমুদ্রের নাজিরারটেক পয়েন্টের চরে সজোরে ধাক্কা খেয়ে আটকে যায় নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীসহ পর্যটকবাহী জাহাজ ‘কর্ণফুলী এক্সপ্রেস’। এতে দুর্ঘটনার হাত থেকে অল্পের জন্য জাহাজটি রক্ষা পায়। তবে জাহাজটির ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের দাবি, নাবিকের গতিপথ ভুলের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে।

তারপরও শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) সকালে কক্সবাজার শহরের উত্তর নুনিয়ারছড়াস্থ বাঁকখালী নদীর বিআইডব্লিউটিএ ঘাট থেকে জাহাজটি পর্যটকদের নিয়ে সেন্টমার্টিনের উদ্দ্যেশে রওনা দেবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকালে কক্সবাজার শহরের উত্তর নুনিয়ারছড়ার বাঁকখালী নদীর বিআইডব্লিউটিএ ঘাট থেকে কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌরুটে জাহাজটি চলাচলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালেদ মাহমুদ চৌধুরী।

পর্যটকবাহী জাহাজটি উদ্বোধনের পরপরই সমুদ্রে জেগে উঠা চরে আটকে যাওয়া প্রসঙ্গে কর্ণফুলী এক্সপ্রেসের পরিচালক এম. হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর বলেন, ‘নাবিক গতিপথ ভুল করায় সমুদ্রে পানির নিচে জেগে উঠা চরে আটকা পড়ে। এতে সজোরে ধাক্কা খাওয়ায় জাহাজে থাকা যাত্রীরা ভয় পেয়েছিল। তবে বিষয়টি দুর্ঘটনা নয়। জাহাজটি উদ্বোধনের আগে কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌরুটে চলাচলের উপযোগিতা নিয়ে পরীক্ষামূলক যাচাই করা হয়েছিল। এতে তারা সফলতাও পেয়েছেন।’